আশুরার মিছিলের বিভিন্ন রুটে ব্যারিকেড ব্যবস্থাপনা, পিকেট ব্যবস্থাপনা থাকবেঃ ডিএমপি কমিশনার

66

বিডিসংবাদ ডেস্কঃ  পবিত্র আশুরা উপলক্ষে এবারের তাজিয়া মিছিলে কাঁচি, ছুরি, তলোয়ার ও ধারালো জাতীয় অস্ত্র নিষিদ্ধ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের কমিশনার (ডিএমপি) আছাদুজ্জামান মিয়া।

তিনি বলেছেন, শোভাযাত্রায় ঢাল, দা, বল্লম ব্যবহার ও কোনো ধরনের পটকা ফুটানো যাবে না। শিয়া সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় অনুষ্ঠান আশুরা উপলক্ষে ইমামবাড়া থেকে এবারও তাজিয়া মিছিল বের হবে। এই তাজিয়া মিছিলকে কেন্দ্র করে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। হোসেনী দালানের প্রতিটি গেটে থাকবে আর্চওয়ের ব্যবস্থা। ইমামবাড়ায় প্রবেশ করতে হলে আর্চওয়ের ভেতর দিয়েই তল্লাশির মাধ্যমে সবাইকে প্রবেশ করতে হবে। প্রতিটি ইমামবাড়া সিসিটিভির আওতায় থাকবে।

আজ বৃহস্পতিবার পুরান ঢাকার হোসেনী দালানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন শেষে ডিএমপি কমিশনার সাংবাদিকদের একথা বলেন।

এ সময় পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর পুলিশের যুগ্ম কমিশনার (ক্রাইম) কৃষ্ণ পদ রায়, গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার আব্দুল বাতেনসহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কমিশনার বলেন, এ দেশের প্রতিটি নাগরিকের ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালন করার অধিকার রয়েছে। আর সে অনুষ্ঠানগুলো যেন ঠিক মত হতে পারে সেজন্য নিরাপত্তার বিষয় দেখবে রাষ্ট্র ও পুলিশ। সেজন্য মহররমের দিন শিয়া সম্প্রদায়ের যতগুলো ইমামবাড়া আছে সেগুলোর প্রতিটি সিসিটিভির আওতায় থাকবে। সাদা পোশাকে ও ইউনিফর্মে পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন থাকবে। প্রতিটি ইমামবাড়া সুইপিং করা হবে। পুলিশের বিশেষ শাখা (এসবি), ডিএমপির ডগ স্কোয়াড ও র‌্যাবের ডগ স্কোয়াড দিয়ে সুইপিং করা হবে।

পুলিশের এই কর্মকর্তা আরো বলেন, মিছিলের বিভিন্ন রুটে ব্যারিকেড ব্যবস্থাপনা, পিকেট ব্যবস্থাপনা থাকবে। এছাড়া নির্ধারিত পোশাক ও সাদা পোশাকে গোয়েন্দা পুলিশসহ অন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবেন। মিছিলের আগে-পিছে পুলিশ মোতায়েন থাকবে।