কালীগঞ্জে বাল্য বিয়ে দেয়ার অপরাধে কাজীর জেল,বর পলাতক

12

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ বাল্য বিয়ে পড়ানোর অপরাধে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে আসাদুল ইসলাম (৫৫) নামের এক কাজীকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড-দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে বগেরগাছী গ্রামে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ছাদেকুর রহমান এ কারাদন্ড-প্রদান করেন। সাজাপ্রাপ্ত কাজী বগেরগাছি গ্রামের মৃত এলাহী বক্সের ছেলে।

ভ্রাম্যমান আদালত সূত্রে জানাগেছে, মঙ্গলবার ভোরে বগেরগাছি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী ও উপজেলার মান্দারবাড়ীয়া গ্রামের হযরত আলীর মেয়ে রিমির সাখে একই গ্রামের সাকিবের বাল্য বিয়ে পড়ানো হয়। আর বাল্য বিয়ে পড়ানোর কাজটি করেন কাজী আসাদুল ইসলাম। পরে গোপন সংবাদ পেয়ে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে সেখানে কাজীকে এক মাসের জেল প্রদান করে। তিনি আরো জানান, এ সময় পাত্র সাকিব ও তার বাবা পালিয়ে যায়।

ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ছাদেকুর রহমান জানান, স্কুল পড়–য়া অপ্রাপ্ত বয়স্ক ছাত্রীকে বাল্য বিয়ে দেওযার অপরাধে আসাদুল ইসলাম নামের এক কাজীকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডদেয়া হয়েছে। ভ্রাম্যমান আদালতের সময় কালীগঞ্জ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা খন্দকার শরিফা আক্তার, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জাহিদুল করিম ও বারবাজার ক্যাম্পের এসআই রঞ্জন কুমার উপস্থিত ছিলেন।