খাগড়াছড়িতে অত্যাধুনিক রাইফেল, পিস্তলসহ বিপুল সামরিক সরঞ্জাম উদ্ধার

সেনাবাহিনী-ইউপিডিএফ গোলাগুলি

43

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: খাগড়াছড়ির মহালছড়িতে নিরাপত্তাবাহিনী ও ইউপিডিএফ সন্ত্রাসীদের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় জড়িত কোন সন্ত্রাসীকে আটক করা না গেলেও উদ্ধার হয়েছে আমেরিকান একটি অত্যাধুনিক কোল্ট রাইফেল, একটি ফ্রান্সের তৈরি পিস্তল ও ১০ রাউন্ড গুলিসহ বিপুল সামরিক সরঞ্জাম।

স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, চাঁদাবাজি ও নাশকতার উদ্দেশ্যে সন্ত্রাসীদের একটি দল বিপুল অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে অবস্থান করছে এমন গোপন তথ্যের ভিত্তিতে রবিবার দিবাগত রাত (সোমবার) দেড়টার দিকে মহালছড়ি জোনের মেজর সালেহ বিন শফি’র নেতৃত্বে লেমুছড়ি এলাকায় অভিযান শুরু হয় সেনাবাহিনী।

এক পর্যায়ে ভোর সাড়ে ৪টার দিকে সন্ত্রাসীদের আস্তানার কাছাকাছি পৌঁছলে সন্ত্রাসীরা সেনাবাহিনীকে লক্ষ করে গুলি ছুঁড়তে শুরু করে। এ সময় নিরাপত্তাবাহিনীও পাল্টাগুলি ছোঁড়ে। নিরাপত্তাবাহিনী স্থানীয় জনসাধারনের জানমালের ক্ষয়-ক্ষতির কথা বিবেচনা করে এক পর্যায়ে তাদের ফায়ার বন্ধ করে। এ সুযোগে সন্ত্রাসীরা দূর্গম পাহাড়ী এলাকার ভিতরে পালিয়ে যায়।

পরে তল্লাশী চালিয়ে ঘটনাস্থল থেকে ৬ রাউন্ড গুলিসহ আমেরিকান তৈরী একটি অত্যাধুনিক কোল্ট রাইফেল, কোল্ট রাইফেলের একটি একটি ম্যাগজিন, ৪ রাউন্ড গুলিসহ ইউএসএ তৈরী একটি পিস্তল, একটি পিস্তলের ম্যাগজিন ও বিপুল পরিমাণ সামরিক সরঞ্জাম উদ্ধার করে।

খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়নের ষ্টাফ অফিসার মেজর মোহাম্মদ মুজাহিদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সন্ত্রাসীদের গুলির জবাবে নিরাপত্তাবাহিনী ২৬ রাউন্ড গুলি ছুঁড়েছে।

তবে এ ঘটনার দায় অস্বীকার করে গুলি বিনিময় ও অস্ত্র উদ্ধারের সাথে ইউনাইটেড পিপলস্ ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) সম্পৃক্তা নেই জানিয়েছেন সংগঠনটির প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নীরন চাকমা।