চট্টগ্রামে নগরীতে শিশু কন্যাকে ধর্ষণের চেষ্টায় সৎ পিতা গ্রেফতার

43

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: চট্টগ্রাম মহনগরীর ইপিজেড থানাধীন ব্যাংক কলোনী এলাকায় ৮ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে সৎ পিতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টা নাগাদ ইপিজেড থানাধীন ব্যাংক কলোনীস্থ আমির সাধুর বিল্ডিং এর ৩য় তলার ভাড়া বাসা থেকে অভিযুক্ত সৎ পিতা নিজাম উদ্দিন (৫০) কে গ্রেফতার করা হয়।

সৎ পিতা মো: নিজাম উদ্দিন চট্টগ্রাম জেলার মীরসরাই থানার তালবাড়িয়া গ্রামের মৃত আশোতোষের পুত্র। সে চান্দগাঁও সিএনবিস্থ একটি সাবান কারখানায় কাজ করে।
থানায় বাদী হয়ে মামলা দায়ের করা ৮ বছরের শিশু কন্যা ইসরাত জাহান জেসমিন এর মাতা রুজি আকতার জানায়, আমার মেয়ে ইসরাত আলহাজ্ব গ্রামার স্কুলের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রী। আর আমি সিইপিজেডস্থ রিজেন্সী গার্মেন্টসের একজন পোশাক শ্রমিক। আমার পূর্বের স্বামী বিগত ৭ বছর পূর্বে মারা গেলে আমি আমার মেয়ে ইসরাতকে নিয়ে বিগত দুই বছর আগে বর্তমান স্বামী মো: নিজামের সাথে ইসলামিক শরিয়ত মোতাবেক বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হই।

আর সেই সূত্রে আমি আমার মেয়ে ইসরাতকে নিয়ে ইপিজেড থানাধীন ব্যাংক কলোনীস্থ আমির সাধুর বিল্ডিং এর ৩য় তলার ১৭নং একটি ভাড়া বাসায় আমার স্বামী নিজামকে নিয়ে একই সাথে বসবাস করে আসছি।

গত ২৫ জুলাই মঙ্গলবার প্রতিদিনের মতই আমি আমার মেয়ে ইসরাতকে বাসায় রেখে সকাল ৬টা নাগাদ বের হয়ে দুপুর ২টা নাগাদ বাসায় ফিরে আসি। বাসায় এসে দেখি আমার মেয়ে ইসরাত খুব কান্না করছে। আমি ইসরাতকে কান্না করার কারন জানতে চাইলে আমার মেয়ে জানায় দুপুর নাগাদ তার সৎ পিতা নিজাম তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। ইসরাত আমাকে আরো জানায় তার সৎ পিতা তাকে উলঙ্গ করে শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর অঙ্গে হাত বুলায় এবং এক পর্যায়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে।

আমি এ সম্পর্কে আমার স্বামী নিজামকে জিজ্ঞাসা করলে সে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে এবং বিষয়টি কাউকে না জানানোর জন্য আমাকে বিভিন্ন ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদান করে। আমি এ ব্যাপারে আমার আত্মীয় স্বজনদের সাথে আলোচনা করে থানায় এসে মামলা দায়ের করি। পরে পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ইপিজেড থানার সেকেন্ড অফিসার জাহেদ উল্লাহ জামান  জানায়, বুধবার সকাল ৯টা নাগাদ মা রুজি আকতার বাদী হয়ে থানায় এসে সৎ পিতা কর্তৃক ৮ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের চেষ্টা নিয়ে অভিযোগ দায়ের করে। পরে পুলিশ দুপুর সাড়ে ১২টা নাগাদ অভিযুক্ত সৎ পিতা মো: নিজাম উদ্দিনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে ঘটনা স্বীকার করে ।

পরে তাকে শিশু কন্যা ধর্ষণ চেষ্টা মামলায় আদালতে প্রেরণ করা হলে মহানগর ম্যাজিষ্ট্রেট এস এম মাসুদ পারভেজ তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।