ভোলার লালমোহনে এক গৃহবধূর মৃতদেহ উদ্ধার

20

ভোলা প্রতিনিধিঃ ভোলার লালমোহনে লীমা (২০) নামের এক গৃহবধূর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে লালমোহন থানা পুলিশ।
ঘটনার পর থেকে পালাতক রয়েছে নিহতের স্বামী শাহীন ও শশুর কামাল।

শনিবার (১৭) জুন রাত আনুমানিক ২ টার দিকে লালমোহন পৌরসভার নবগঠিত ১০ নং ওয়ার্ড ও কালমা ইউনিয়নের সাবেক ৪ নং ওয়ার্ডের চর ছকিনা এলাকার ফজলু হাওলাদার বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, লিমার সাথে তার স্বামী শাহীনের সাথে প্রায় সময়েই ঝগড়া হতো। লিমার স্বামী প্রায় সময়েই তাকে মারধর করতো। শাহীন লালমোহন উত্তর বাজারে একটি চানাচুর ব্যবসার সাথে জড়িত।

নিহতের লীমার বড় বোন সীমা জানায়, রোববার সকালে আমি ঘরের দরজা খুলতেই দেখতে পাই লিমার মৃতদেহ ঘরের মেঝেতে পড়ে আছে।। পরে আমি কিছু বুঝে না উঠতে পেরে চিৎকার দিলে এলাকার লোকজন ছুটে আসেন।

সীমা আরো বলেন, শাহীন আমার বোনকে বিভিন্ন সময় হত্যার হুমকি দিতো। তাই আমি মনে করি লীমার স্বামীই তাকে হত্যা করে পালিয়েছে।

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ কামাল হোসেন বলেন, আমি লিমার বড় বোন সীমার চিৎকারে ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে গিয়ে দেখতে পাই লিমার লাশ মেঝেতে পড়ে আছে। ঘটনাস্থলে গিয়ে আমি লালমোহন থানায় ফোন দেই। পরে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

লালমোহন থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) হুমাইন কবির বলেন, এটি হত্যা না আত্মহত্যা তা নিশ্চিত হওয়ায় যায়নি, লাশ ময়না তদন্তের জন্য ভোলা সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।তবে ময়না তদন্তের রিপোর্ট এলে নিশ্চিত হওয়ায় যাবে। এ ঘটনায় নিহতের বাবার বাড়ির লোকজক একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছে বলেও জানান ওসি।