শিক্ষক পেটানো নব্য ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগের পাহাড়

23

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা ৮নং পৌর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও নব্য ছাত্রলীগনেতা সোহেল রানার বিরুদ্ধে স্কুল শিক্ষককে পেটানো অভিযোগে মানববন্ধন ও শ্রীঘরে যাওয়ার পর বেরিয়ে আসতে একের পর এক অনিয়মের পাহাড়। সে পৌর কাউন্সিলর হওয়ার সুবাদে নানা অনিয়মসহ ক্ষমতার অপব্যবহার করারও অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে।

জানা যায়, মাটিরাঙ্গা পৌর ওয়ার্ডের পশ্চিম মুসলিমপাড়ার মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় সড়ক উন্নয়নের কাজের জন্য ৭লক্ষ টাকা বরাদ্দে রাস্তা উন্নয়নের জন্য ৫/৬ মাস আগে কাজ পেলে তা ছয়-নয় করে দূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। কাজ মান সম্মত না হওয়ার ফলে বর্তমানে তা ভেঙ্গে পরায় এলাকাবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করে তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আনে। সে খাগড়াছড়ি জেলা ছাত্রলীগের সদস্য বলে জানা যায়।

সে ৮নং মুসলিমপাড়া গুচ্ছগ্রামের প্রকল্প চেয়ারম্যান হওয়ার পর তার বিরুদ্ধে ওজনে কম দেওয়াসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা,জেলা প্রশাসক,দুদকসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছে স্থানীয় ১০৯ গুচ্ছগ্রামের বাসীরা।

এছাড়াও তার বিরুদ্ধে বিএনপি অফিস দখল, অবৈধ ভাবে অর্থ লেনেদেন ও কাউন্সিলর হয়েই বিলাসবহুল বাড়ী নির্মাণেরও অভিযোগ উঠেছে। বিভিন্ন স্থানীয় মানুষকে হত্যার হুমকি,মারধরসহ নানা অভিযোগের তার বিরুদ্ধে মাটিরাঙ্গা থানাও একাদিক অভিযোগসহ কোর্টে মামলা চলমান রয়েছে। সম্প্রতি স্থানীয় এক স্কুল শিক্ষকে বেদড়ক ভাবে পেটানোর ঘটনায় সে জেল হাজতে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

অভিযোগে বিষয়ে কাউন্সিলর সোহেল রানা বলেন, সড়ক উন্নয়নের কাজ পাওয়ার পর সে তা বিক্রয় করে। তবেসে কাজ নিম্মমানের হওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে। এছাড়াও বিলাসবহুল বাড়ীটিসে ধার-দেনান করে করেছে জানিয়ে গুচ্ছগ্রামের প্রকল্প চেয়ারম্যান হলে সকলের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ উঠে বলে মন্তব্য করে।

অন্যদিকে বিএনপি অফিস দখলের অভিযোগের বিষয়ে তিনি বলেন, স্থানীয় ওয়ার্ড বিএনপির সাথে আলাপ করে জেলা বিএনপির সভাপতির অনুমতিক্রমে এ অফিসে ক্লাব হিসেবে ব্যবহার করছে বলে জানান।  তবে বিষয়টি সম্পূন্ন মিথ্যা-ভিত্তিহীন দাবী করে স্থানীয় বিএনপির নেতারা সে ক্ষমতার অপব্যবহার করে শহীদ জিয়া স্মৃতি সংসদ অফিস দখলের অভিযোগ আনেন।

এদিকে বিভিন্ন অভিযোগের বিষয়ে খাগড়াছড়ি জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি টিকো চাকমা ও সাধারণ সম্পাদক জহির উদ্দিন ফিরোজের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তারা বলেন, দলের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করাসহ দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে সোহেল রানাকে বহিস্কারের জন্য লিখিত ভাবে সুপারিশ পাঠানো হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন দুই ছাত্রলীগ নেতা।