মানুষ মতপ্রকাশে ভয় পেলে গণতন্ত্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়: অমর্ত্য সেন

82

অর্থনীতিতে নোবেলজয়ী প্রথম এশিয়ান অমর্ত্য সেন বলেছেন, মানুষ যখন কথা বলতে ভয় পায় তখন সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয় গণতন্ত্র। ১৯৭০ সালে লেখা কালেকটিভ চয়েস অ্যান্ড সোশ্যাল ওয়েলফেয়ারের বর্ধিত সংস্করণের প্রকাশকে সামনে রেখে দ্য ইকোনমিক টাইমসকে দেয়া সাক্ষাতকারে তিনি  এ কথা কলেন।

ডোনাল্ড ট্রাম্প সহ বিশ্বে কট্টরপন্থিদের উত্থানের যুগে উদারবাদীরা হুমকির মুখে পড়ছে কী না এমন প্রশ্নের জবাবে অমর্ত্য সেন বলেন, সাধারণ জনগণের শঙ্কা ও জনগুরুত্বপুর্ণ ইস্যুতে মত প্রকাশে কড়াকড়ি আরোপ করা হলে সেটা যেকোনো ধরণের রাজনৈতিক অংশগ্রহণের জন্য সমস্যাপূর্ণ, এবং সুনির্দিষ্টভাবে এটি গণতন্ত্রচর্চার জন্য খারাপ। ভারতে কিছু বিষয়ে মত প্রকাশের বিষয়ে ভয়ের পরিবেশ বিরাজ করছে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা যাতে কিছু বিষয়ে মত প্রকাশ না করতে পারে সেজন্য বিধি আরোপ করছে। এমনকি তারা যদি তাদের মতের পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন করে এবং এমনকি যদি এমন কাউকে আমন্ত্রণ জানানো হয় তাহলে তাদের মধ্যে চাকরি হারানোর ভয় কাজ করে।

শুধু তাই নয়, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কালো টাকার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ৫০০ ও ১ হাজার রূপির নোট বাতিলের সিদ্ধান্তকে ‘বুঝতে অক্ষম’ উল্লেখ করে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ বলেন, এই চিন্তাটাই ভারি অদ্ভুত ছিল। প্রাথমিকভাবে বলা হয়েছিল যে দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণে এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। কিন্তু এটা খুবই দুর্বল যুক্তি কারণ কালো টাকার মাত্র ৬-৭ শতাংশ নগদ অর্থে বিদ্যমান। তিনি যোগ করেন, উদ্ভট এই সিদ্ধান্তে ভোগান্তির স্বীকার হয়েছে প্রান্তিক দরিদ্র মানুষজন।