“বৃষ্টি এবং তুমি”

175
 কবি- হাসিনা মরিয়ম

 বারান্দার দেয়াল ঘেসে নিমগাছটা দাঁড়িয়ে আছে,
 অঝোর ধারায় বৃষ্টি ঝরে পড়ছে গাছের শাখা প্রশাখায়,
 বারান্দায় একাকি দাঁড়িয়ে বৃষ্টির রিমঝিম শব্দে
        বিষন্নতা গ্রাস করে আমায়......
 খুব বেশী মনে পড়ে তোমাকে
   বৃষ্টি আর তুমি যেনো একই সুতোয় গাঁথা...
 কোন এক বৃষ্টি ভেজা ক্ষনে 
        তোমার সাথে আমার পরিচয়,
 প্রথম যৌবনের মত জীবনের প্রথম ভালোবাসা......
 ঝুম বৃষ্টিতে চারিদিকে একধরনের রহস্য ময়তা
 এরই মাঝে তুমি আর আমি দাঁড়িয়ে আছি
 ফোঁটা ফোঁটা বৃষ্টিতে ছুঁয়ে যাচ্ছে আমার শরীর
 তির তির করে কাঁপছে পেলব লতার মত
        আমার লতানো শরীর...
 দুজন দুজনের চোখের দিকে তাকিয়ে আছি
 মনে হচ্ছে আদি অনন্তহীন যুগ ধরে
         দুজন দুজনকে দেখছি...      
 বিষণ্ণ বিকেলে তুমি আর আমি ছাড়া কোথাও কেউ নেই
 তুমিই প্রথম হাত বাড়িয়ে দিলে আমার দিকে
 মনে হয়েছে আমরা পৃথিবীর প্রথম মানব মানবী,
 সেদিন মনে হয়েছে আমার
 তোমাকে আমি জনম জনম ধরে চিনি,
 আজ একাকি নিঃসঙ্গতার মাঝে তোমাকে বয়ে বেড়াচ্ছি আমি
          তোমাকে ছাড়া আমি কেউ না...
 নিঃসঙ্গতার মাঝে তোমাকে অনুভব করি ভীষনভাবে...
           কে বলে তুমি নেই...
 আমি জানি তুমি মিশে আছো আমার অস্তিত্বে...।।

 বিডিসংবাদ/এএইচএস