ড্যাফোডিল “আইসিটি কার্নিভাল” ১১ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু

92
‘ড্যাফোডিল আইসিটি কার্নিভাল ২০১৮’উপলক্ষ্যে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ৭১ মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন ড্যাফোডিল ফ্যামিলির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ নূরুজ্জামান।

বিডিসংবাদ প্রতিবেদকঃ   আসন্ন ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ থেকে শুরু হচ্ছে ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের আশুলিয়া স্থায়ী ক্যাম্পাসে ৩ দিন দিনব্যাপী ‘ড্যাফোডিল আইসিটি কার্নিভাল ২০১৮’ । আগামী ১১  থেকে ১৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলবে এ কার্নিভাল।

এবারের কার্নিভালের বিশেষ আকর্ষণ প্রাইজ মানি ১০ লক্ষ টাকা।

ড্যাফোডিল আইসিটি কার্নিভাল এ থাকবে প্রতিদিন আইসিটি প্রজেক্ট প্রদর্শনী, ইন্টারেক্টিভ সেশন, প্যানেল ডিসকাশন, ক্যারিয়ার টক, সেমিনার, ওয়ার্কশপ, সিম্পোজিয়াম, স্মার্ট ক্যাম্পাস হ্যাকাথন, প্রোগ্রামিং কনটেষ্ট, কুইজ প্রতিযোগিতা, ফান গেইমস, মুভি, গেইম শো ও টেকনো ফেশন শো ইত্যাদি।

কার্নিভাল উদ্বোধন করবেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ডাক, টেলিযোগাযোগ ও আইসিটি মন্ত্রী জনাব মোস্তাফা জব্বার। সেরা প্রকল্প ও পারফরমারের জন্য মোট ১০ লক্ষ টাকার পুরস্কার দেয়া হবে এ কার্নিভালে। অংশগ্রহনের জন্য রেজিষ্ট্রেশনের শেষ তারিখ আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ পর্যন্ত ।  বিস্তারিত ও রেজিষ্ট্রেশনের জন্য ক্লিক করুন

আজ ১লা ফ্রেরুয়ারী ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ৭১ মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন ড্যাফোডিল আইসিটি কার্নিভালের আহ্বায়ক ও ড্যাফোডিল ফ্যামিলির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ নূরুজ্জামান, ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান ড. তৌহিদ ভূইয়া, মাল্টিমিডিয়া ও ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি বিভাগের প্রধান ড. শেখ মোহাম্মদ আলায়ের, ড্যাফোডিল ইন্সটিটিউট অব আইটির অধ্যক্ষ মোঃ সাখাওয়াত হোসেন, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল প্রফেশনাল ট্রেনিং ইন্সটিটিউটের (দীপ্তি) নির্বাহী পরিচালক রথীন্দ্রনাথ দাসসহ ড্যাফোডিল ফ্যামিলির উধ্বতন কর্মকর্তা বৃন্দ।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, “বর্তমান তথ্যপ্রযুক্তির  এ যুগে ‘আইসিটি’ একটি জনপ্রিয় ও দ্রুত উন্নয়নশীল খাত। আর আমাদের দেশের তরুন প্রজন্মও এ অগ্রযাত্রায় সহযাত্রী হয়ে তথ্যপ্রযুক্তির সর্বাধূনিক উদ্ভাবনীর নানাবিধ ধারার সাথে তালমিলিয়ে তাদের সামনে দৃশ্যমান যতটুকু সুবিধা নেয়া সম্ভব তা নিতে বিন্দুমাত্র পিছিয়ে নেই। তারপরও যথাযথ পৃষ্ঠপোষকতা,  ইন্ডাষ্ট্রির সাথে সংযুক্তি ও অনুকুল পরিবেশের অভাবে আমাদের তরুন প্রজন্ম তাদের প্রতিভা, মেধা ও যোগ্যতার বিকাশ ও পরিপূর্ন প্রস্ফুটন ঘটাতে পারছে না। আবার শিল্প প্রতিষ্ঠাান সমূহও তাদের প্রয়োজনীয় দক্ষ জনবল পাচ্ছে না। এ দু’য়ের মাঝে সেতুবন্ধন সৃষ্টি ও তথ্যপ্রযুক্তিখাতে ড্যাফোডিল পরিবারের পণ্য ও সেবাসমূহ  জনসম্মুখে তুলে ধরতেই এ কার্নিভালের আয়োজন।”

বিডিসংবাদ/সামি

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here