জ্ঞান ফেরেনি, সিঙ্গাপুরে নেয়া হচ্ছে র‌্যাবের গোয়েন্দাপ্রধানকে

20

সিলেটে শিববাড়ির পাঠানপাড়ায় বোমা বিস্ফোরণে গুরুতর আহত র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখার পরিচালক লে. কর্নেল আবুল কালাম আজাদের জ্ঞান ফেরেনি। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সিঙ্গাপুরে নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের জ্যেষ্ঠ সহকারী পরিচালক মিজানুর রহমান।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন তিনি।

শিববাড়িতে জঙ্গি আস্তানা ঘিরে অপারেশন টোয়াইলাইটের মধ্যেই শনিবার সন্ধ্যায় ওই আস্তানার এক কিলোমিটারের মধ্যে পরপর দুইটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটে। ওই বিস্ফোরণে এখনও পর্যন্ত ৬ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। সেখানেই আহত হন আবুল কালাম আজাদ।

রোববার দুপুর ১২টায় র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার সহকারী পরিচালক মেজর মেহেদী জানান, র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখার পরিচালক লে. কর্নেল আবুল কালাম আজাদকে গুরুতর আহত অবস্থায় গতরাতেই ঢাকায় নিয়ে আসা হয়। অবস্থা এখনো গুরুতর। শঙ্কামুক্ত নন তিনি। সিএমএইচে চিকিৎসকরা পর্যবেক্ষণে রেখেছেন। চিকিৎসকরা এখনও নিশ্চিতভাবে কিছু বলতে পারছেন না।

বিস্ফোরণে আহত হওয়ার পরপরই আজাদকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে রাখা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে ঢাকায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) নিয়ে আসা হয়।

বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় দুই পুলিশ কর্মকর্তাসহ ছয় জন নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন- জালালাবাদ থানার ওসি (তদন্ত) মনিরুল ইসলাম, পুলিশ সদস্য চোধুরী মুহাম্মদ আবু কায়সার দীপু, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা ছাত্রলীগের উপ-পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক জান্নাতুল ফাহিম, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ওয়াহিদুল ইসলাম অপু, শহীদুল ইসলাম ও আব্দুল কাদের।

এছাড়া বোমার স্প্লিন্টারের আঘাতে আরও ৩০ জন আহত হয়েছেন। তাদের ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এই বোমা বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করেছে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)। আইএসের কথিত বার্তা সংস্থা ‘আমাক’ এর বরাত দিয়ে রাতেই যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠান সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপ এ তথ্য জানিয়েছে।

তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বিস্ফোরণের সঙ্গে আইএসের কোনো সম্পর্ক নেই।