ব্যথায় পেঁচিয়ে রাখুন অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল, এরপর জাদু

58

সাধারণত খাদ্যবস্তু মুড়িয়ে রাখতে বা ওভেনে খাবার গরম করতে ঢাকনা হিসেবে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল ব্যবহার করা হয়। কিন্তু এটা ব্যথা ও প্রদাহ জনিত সমস্যা কমাতেও দারুণ কাজ করে, এমনটাই দাবি করেছেন গবেষকরা।

গবেষকরা জানান, অ্যালুমিনিয়াম ফয়েলে চিকিৎসা কথাটা উদ্ভট শোনালেও এটা চায়নাদের একটা প্রাচীন আর্ট। এটা শরীরের ব্যথা নিরাময়ে একটি প্রাকৃতিক প্রক্রিয়া, যা শরীরের ব্যথার স্থানে পেঁচিয়ে চিকিৎসা করা হয়। এ চিকিৎসা প্রদাহজনিত সমস্যা সারাতে বেশ কাজে আসে।

ব্যথা নিরাময়ে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল কীভাবে ব্যবহার করতে হবে তা নিম্নে আলোচনা করা হলো;

* গোড়ালি ব্যথা হলে ঘুমাতে যাওয়ার আগে, ব্যথার স্থানে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল দিয়ে মুড়িয়ে রাখুন। একটানা ১৪ দিন এভাবে করলে দেখবেন গোড়ালি ব্যথা কমে গেছে।

* অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল ফ্রিজে ৪ ঘণ্টা রাখুন। এরপর এটা ফ্রিজ থেকে বের করে মুখের ওপর রেখে হাত দিয়ে হালকা চাপ দিন। ১০ মিনিটের জন্য পরে মুখ থেকে ফয়েলটি তুলে ফেলুন। এতে আপনার স্ট্রেস কমে যাবে এবং আপনি বেশ স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবেন।

* একইভাবে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল পেঁচিয়ে রাখলে গেঁটেবাত, বাত বা নিতম্ববেদনার মতো বিভিন্ন প্রকার যন্ত্রণা কমে যায়।

* ত্বক ছোটখাটো পুড়ে গেলে প্রথমে ওই স্থানটি ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। তারপর আলতো করে মলম লাগান। এরপর ব্যান্ডেজ হিসাবে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল ব্যবহার করতে পারেন। এতে ক্ষত স্থানে আরাম পাওয়া যায়।

* কোনো কারণে পেশীতে কালশিটে পড়লে ওই স্থানে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েলে মুড়িয়ে ৪ ঘণ্টা রাখুন। এতে আপনার পেশির কালশিটে দাগ কমে যাবে। ১০ দিন পরপর এমনটা করুন উপকার পাবেন।

* অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল শরীরে অস্ত্রোপচারের দাগও মুছে ফেলে। শরীরে অস্ত্রোপচারের দাগের স্থানে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল পেঁচিয়ে রাখুন। এর কয়েক ঘণ্টা পর ফয়েলটি খুলে ফেলবেন। এভাবে ১০ দিন ফয়েল ব্যাবহার করলেই দেখবেন দাগ কেমন হালকা হয়ে গেছে।

* কোনো কারণে হাত-পা মচকে গেলে বা জয়েন্ট আলগা হলে, ওই এলাকায় টাইট করে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল পেঁটিয়ে রাখুন। এতে ব্যাথা কমে যাবে এবং আপনিও আরাম পাবেন।