তুরস্কে কবুতরের বাজার

208

অনেকের কাছে কবুতর বা পায়রা পোষা শুধু শখ নয়, অনেকটা নেশার মতো৷ সেরকম কবুতরপ্রেমীদের জন্যই তুরস্কের সানলিউরফার বাজার৷ বাজারের কাছেই সীরিয়া সীমান্ত৷ যুদ্ধ চলছে সেখানে৷ কিন্তু সানলিউরফায় ঠিকই বসছে কবুতরের বাজার৷
নিলামে কবুতর

তুরস্কের দক্ষিণ-পূর্বের শহর সানলিউরফা৷ সিরিয়ার খুব কাছে এই শহর৷ তাই যখন-তখন গোলার আঘাতে মৃত্যুর আশঙ্কা সেখানে থাকেই৷ তারপরও কার্ডবোর্ডোর বাক্সে কবুতর নিয়ে নিয়মিত তিন চায়ের দোকানের মোড়ে আসেন কবুতর বিক্রেতারা৷ কবুতর বিক্রি হয় নিলামে৷

সংকটপূর্ণ এলাকা

এ শহর থেকে সিরিয়া সীমান্ত মাত্র ৫০ কিলোমিটার দূরে৷ ফলে এখানে সিরিয়া সংকটের প্রভাব আগে পড়েছে, এখন পড়ছে, আগামীতেও পড়বে৷ তাছাড়া এ অঞ্চলে তুর্কি সেনাবাহিনির সঙ্গে কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সংঘাতও প্রায় নিত্য দিনের ঘটনা৷

পায়রাপ্রেম

সানলিউরফার এই বাজারে যাঁরা পায়রা কিনতে আসেন, তাঁরা কিন্তু সাধারণ ক্রেতা নন৷ অধিকাংশই পায়রাপ্রেমী৷ তাই পছন্দ হলে যত দামই হাঁকা হোক না কেন, সেই পায়রা তাঁরা কিনবেনই৷ তুরস্কে এই জাতের পায়রাকে সবাই ‘সিয়াহ কিনিফরলি’ নামে চেনে৷ এর দাম ১০০০ তুর্কি লিরা, অর্থাৎ ২৪৩ ইউরোর মতো৷

চড়া দামের শখ

বিক্রেতা দিলদাস গর্ব করেই বললেন, ‘‘একবার আমি এক জোড়া পায়রা ৩৫ হাজার লিরা (৮,৫০০ ইউরো)-তে বিক্রি করেছিলাম৷ আসলে এ এমন এক ভালোলাগা, যা থেকে রেহাই নেই৷ আমি তো বাড়ির ফ্রিজ এবং বউয়ের সোনার ব্রেসলেট বিক্রি করেও পায়রার দাম দিয়েছি৷’’

শান্তিপ্রিয় বন্ধু

যখন কবুতর বিক্রি হয়না, তখন সবাই নিজের কবুতর নিয়ে চলে যান বাড়ির ছাদে৷ সবাই যার যার কবুতর ওড়ান৷ শত শত কবুতরে ছেয়ে যায় আকাশ৷ রেসিত গুজেলও কবুতরপ্রেমী৷ ৫৫ বছর বয়সি গুজেল বলছিলেন, পাখিরা আমার বন্ধু৷ ওরা আমাকে শান্তি দেয়৷’’

কবুতরের যত্ন

এই বাজারে কবুতরের ভিটামিন এবং অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধও বিক্রি হয়৷ গুজেলের ৭০টি কবুতর৷ প্রিয় পাখিগুলোকে নিয়মিত ভালো খাবার এবং ভিটামিন খাওয়ান তিনি৷ তাতে প্রতিদিন অন্তত ৫ লিরা খরচ হয়৷ গুজেল অবশ্য তা নিয়ে ভাবেন না৷

দীর্ঘ যুদ্ধ, কম কবুতর

যুদ্ধ শুরুর পর সিরিয়া থেকে অনেকেই নিজেদের কবুতর নিয়ে চলে এসেছিলেন এই শহরে৷ তখন কবুতরের দাম খুব কমে গিয়েছিল৷ কিন্তু যুদ্ধ দীর্ঘায়িত হওয়ায় আবার দেখা দিয়েছে কবুতরের সংকট৷ এখন সিরিয়া থেকে কবুতর আসা বন্ধ৷ ফলে দাম বাড়ছে তো বাড়ছেই৷