এবার পরাজিত হলো মিয়ামি

প্রাক-মৌসুম প্রীতি ম্যাচে এবার এফসি ডালাসের কাছে ১-০ গোলে পরাজিত হয়েছে লিওনেল মেসির ইন্টার মিয়ামি। মৌসুম শুরুর আগে ব্যস্ত আন্তর্জাতিক সফরকে সামনে রেখে এই পরাজয় দলের আত্মবিশ্বাস কমিয়ে দিয়েছে। ম্যাচের ৩ মিনিটেই গোল হজম করার পর তা আর শোধ করতে পারেনি মিয়ামি।
এর আগে এল সালভাদরের সাথে গোলশুন্য ড্র করে প্রাক-মৌসুম অনুশীলন শুরু করেছিল মিয়ামি। এবার কটন বোল স্টেডিয়ামে প্রচন্ড ঠান্ডার মধ্যে মিয়ামি আর পেরে উঠেনি।
ম্যাচের ৬৪ মিনিটে আর্জেন্টাইন্ট সুপারস্টার মেসি ও তার সাবেক দুই বার্সেলোনা সতীর্থ লুইস সুয়ারেজ ও সার্জিও বাসকুয়েটসকে বদলী বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন কোচ জেরার্ডো মার্টিনো। ঐ সময় মিয়ামি ১-০ গোলে পিছিয়ে ছিল।
যদিও ম্যাচের শুরুটা মিয়ামি ভালই করেছিল। মেসিই প্রথম আক্রমনের সূচনা করেন। প্রথমার্ধে বেশ কিছু আক্রমনের কারিগর তিনি হলেও মিয়ামি কাঙ্খিত গোলের দেখা পায়নি। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ৩০ গজ দুর থেকে তার শক্তিশালী ভলি ডালাস গোলরক্ষক মার্টিন পেস কোনমতে কর্ণারের মাধ্যমে রক্ষা করেন। এর আগে প্রথমার্ধে সুয়ারেজকে দারুন এক এ্যাসিস্ট করেছিলেন মেসি। কিন্তু উরুগুয়াইয়ান তারকার ডান পায়ের শটটি পোস্টের বাইরে দিয়ে চলে যায়। এর আগে ৩ মিনিটে জেসুস ফেরেইরা ডালাসকে এগিয়ে দিয়েছিলেন। মিয়ামি ডিফেন্ডার নোহা এ্যালেনকে ফাঁকি দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় দলের এই স্ট্রাইকার লো এ্যাঙ্গেল শটে মিয়ামি গোলরক্ষক ড্রেক ক্যালেন্ডারকে পরাস্ত করেন।
আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি রিয়াল সল্ট লেকের বিপক্ষে এমএলএস মৌসুম শুরু করবে মিয়ামি। তার আগে দেশ ও দেশের বাইরে বেশ কিছু প্রীতি ম্যাচে অংশ নিবে ডেভিড বেকহ্যামের দল।
ফ্লোরিডার এই দলটি আগামী ২৯ জানুয়ারি সৌদি আরবের পেশাদার ক্লাব আল-হিলালের মোকাবেলা করবে। সৌদি সফরে ১ ফেব্রুয়ারি তাদের পরবর্তী প্রতিপক্ষ আল-নাসর। এই ম্যাচে মেসির বিপক্ষে চির প্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডোর খেলার কথা রয়েছে।
এরপর ৪ ফেব্রুয়ারি এশিয়া সফরে প্রীতি ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ হংকং। তিনদিন পর টোকিওতে জাপানীজ ক্লাব ভিসেল কোবের মোকাবেলা করবে। এরপর যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে এসে ১৫ ফেব্রুয়ারি শেষ প্রীতি ম্যাচে আর্জেন্টাইন স্কোয়াড নিউওয়েলস ওল্ড বয়েজের মুখোমুখি হবে মিয়ামি।
বিডিসংবাদ/এএইচএস