এভারটনের ১০ পয়েন্ট কেটে নেয়ায় বিস্মিত কোচ ডায়চে

প্রিমিয়ার লিগের আর্থিক আইন ভঙ্গের দায়ে এভারটনের সংগ্রহ থেকে ১০ পয়েন্ট কেটে নেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে লিগ কর্তৃপক্ষ। তাদের এই সিদ্ধান্তের বিস্ময় প্রকাশ করেছেন এভারটনের বস সিন ডায়চে। পয়েন্ট কর্তনের কারনে লিগ টেবিলে রেলিগেশন জোনে নেমে গেছে এভারটন।
গত সপ্তাহে এভারটনের বিপক্ষে পয়েন্ট কর্তনের বিস্ময়কর এই সিদ্ধান্ত ক্লাবটির জন্য ছিল একেবারে অনাকাঙ্খিত। প্রিমিয়ার লিগের এত বড় পয়েন্টের শাস্তি এর আগে কখনই হয়নি। পয়েন্ট কমে যাওয়ায় এভারটন এই মুহূর্তে সেফটি জোন থেকে দুই পয়েন্ট উপরে উঠে ১৯তম স্থানে রয়েছে।
ইতোমধ্যেই এভারটন শাস্তির বিরুদ্ধে আপিলের ঘোষনা দিয়েছে। শাস্তির সিদ্ধান্ত বেশ তাড়াহুড়ো করে নেয়া হয়েছে দাবী জানিয়ে ডায়চে প্রথম জনসম্মুখে কোন মন্তব্য করেছেন। স্থানীয় গণমাধ্যমে এ সম্পর্কে ডায়চে বলেছেন, ‘আমি মনে করি অন্যান্য সকলের মতই আমরা সবাই হতবাক। পরিস্থিতি বিবেচনায় মনে হচ্ছে ফুটবলের প্রায় সবাই এই ধরনের সিদ্ধান্তে হতাশ হয়েছে। এভারটনের মত একটি ক্লাবকে এ ধরনের শাস্তি দেবার আগে আরো খতিয়ে দেখা উচিত ছিল। তাই স্পষ্টতই আমরা কিছুটা বিরক্ত হয়েছি।’
এনিয়ে টানা পাঁচ বছরের মত এভারটন আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে প্রিমিয়ার লিগের লভ্যাংশ ও স্থায়ীত্ব আইন ভঙ্গের অভিযোগে গত মার্চে একটি স্বাধীন কমিশন গঠন করা হয়। তিন বছরের মেয়াদে একটি ক্লাব সর্বোচ্চ ১০৫ মিলিয়ন পর্যন্ত ক্ষতি করতে পারে, যার অনুমোদন প্রিমিয়ার লিগের রয়েছে। কিন্তু ২০২১/২২ মৌসুম শেষে তিন বছরে এভারটনের সেই ক্ষতির পরিমান অনুমোদিত অর্থের চেয়ে প্রায় ১৯.৫ মিলিয়ন বেশী ছিল।
গত মৌসুমে এভারটনকে রেলিগেশন থেকে রক্ষা করার পর ডায়চে আশা করছে এবার দলকে অন্তত প্রিমিয়ার লিগ টেবিলের মধ্যবর্তী অবস্থানে নিয়ে যেতে পারবেন। এই লক্ষের দিকে তারা ভালমতই এগিয়ে যাচ্ছিল। পয়েন্ট কর্তনের আগে পাঁচটি লিগ ম্যাচেই তারা জয়ী হয়েছে। আগামীকাল রোববার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডেকে আতিথ্য দিবে এভারটন। এভারটনকে উপরে ওঠানোর লক্ষ্য থেকে কোন কিছুই তাকে হঠাতে পারবে না বলে মন্তব্য করেছেন ডায়চে, এমনকি শাস্তির পরও এভারটনকে নিয়ে দারুন আশাবাদী তিনি। এ সম্পর্কে ডায়চে বলেন, ‘এখানে আসার পর থেকে আমার একটাই লক্ষ্য ছিল, মাঠে কিভাবে ভাল করা যায়, দলকে কিভাবে জয়ী করা যায়। দলের সকলের মধ্যে কিভাবে ভিন্ন অনুভূতি সৃষ্টি করা যায়, পারফরমেন্সে কিভাবে বৈচিত্র্য আনা যায়। আমরা সঠিক পথেই এগিয়ে যাচ্ছিলাম। শক্তিশালী পারফরমেন্সের মাধ্যমে নিজেদের প্রমান করেছি। শাস্তির কারনে আমরা বেশ খানিকটা পিছিয়ে গেছি, কিন্তু এখন আবারো আমাদের নিজেদের টেনে তুলতে হবে। কিন্তু আমার কাজ একটুও পরিবর্তন হয়নি। বর্তমান পরিস্থিতিতে আরো কঠিন হয়ে গেছে সবকিছু। অবশ্যই আমরা এর বিরুদ্ধে আপিল করবো।
এ ব্যপারে প্রতিবাদ জানিয়ে শুক্রবার প্রিমিয়ার লিগের সদর দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ করেছে এভারটন সমর্থকরা। আপিলের ঘোষনা শোনার সাথে সাথে ডায়চে তার দলে আবারো প্রাণ ফিরে এসেছে বলে আতপ্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন।

বিডিসংবাদ/এএইচএস