খাগড়াছড়িতে চাঁদাবাজীর অভিযোগে দুই সাংবাদিক আটক

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার ভুয়াছড়ি এলাকায় চাঁদাবাজী করতে গিয়ে এলাকাবাসীর হাতে আটক হয়েছে দুই সাংবাদিক। আটককৃতদের উত্তম-মধ্যম স্থানীয় ভুয়াছড়ি সেনা ক্যাম্পে সোপর্দ করে এলাকাবাসী। পরে খাগড়াছড়ি সদর থানা পুলিশে তাদের সোপর্দ করে সেনা বাহিনী।

আটকৃতরা হচ্ছে, দৈনিক সংগ্রাম,জনতা ও দি ফিনানসিয়াল এক্সপ্রেসের খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি আবদুল্লাহ আল মামুন ও সংবাদ প্রতিদিনের খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি লোকমান হোসেন। তাদের দু’জনের বিরুদ্ধে দীর্ঘ দিন ধরে খাগড়াছড়ি জেলার বিভিন্ন উপজেলায় চাঁদাবাজিসহ কর্মরত বিভিন্ন সাংবাদিকদের নাম ব্যবহার করে বিভিন্ন জায়গায় ফোন দিয়ে হুমকি-ধমকি দেওয়ারও অভিযোগ রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ভুয়াছড়ি এলাকার মসজিদ নিমানের কাজ একটি একটি পাহাড় কাটছিল স্থানীয় এলাকাবাসী। পরে বাসিন্দা শাহজাহান মিয়া, কাবিল হোসেন, ইদ্রিস আলী জানান, গত ১০ এপ্রিল ভুয়াছড়ি এসে অবৈধ পাহাড় কাটার অভিযোগ এনে নিউজ করার হুমকি দিয়ে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবী আটককৃতরা। একপর্যায়ে বিষয়টি ৫ হাজার টাকায় দফারফা পর তাদের টাকা দিয়ে বিদায় করা হয়।

কিন্তু শবিবার সকালে তারা আবারো পুনরায় গিয়ে ছবি তুলে বাকী টাকা দাবী করলে এলাকাবাসী তাদের আটক করে উত্তম-মধ্যম দিয়ে ভুয়াছড়ি সেনা-ক্যাম্পে দিয়ে দেয়। পরে সেনা বাহিনী আটককৃতদের খাগড়াছড়ি সদর থানায় হস্তান্তর করে বলে জানা যায়। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে খাগড়াছড়ি সদর থানার অফিসার ইনচাজ আবু তারেক মোহাম্মদ আবদুল হান্নান বলেন, আটককৃত সাংবাদিকদের থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি।

এদিকে চাঁদাবাজী কালে দুই সাংবাদিক আটকের ঘটনার বিষয়ে খাগড়াছড়ি সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি নুরুল আজম আজম, বলেন, খাগড়াছড়িতে ইদানিং হলুদ সাংবাদিকতা ও সাংবাদিকতার পরিচয়ে চাঁদাবাজী বৃদ্ধি পেয়েছে। তাই চাঁদাবাজির সাথে জড়িত থাকলে অবশ্যয় তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা প্রয়োজন বলে বলে মন্তব্য করেন।