চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে ছেলের হাতে বাবা খুন

চট্টগ্র্রাম প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে ছেলের লাঠির আঘাতে খুন হয়েছেন বাবা সফিউল আলম মেম্বার (৬৫)। সোমবার (২৯ মে) রাতে উপজেলার ১২ নম্বর খৈয়াছড়া ইউনিয়নের পূর্ব পোলমোগরা গ্রামের সফি মেম্বার বাড়িতে এই ঘটনা ঘটেছে।

নিহত সফিউল আলম পূর্ব পোলমোগরা গ্রামের মৃত মনির আহম্মদের পুত্র এবং খৈয়াছড়া ইউনিয়ন ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার (ইউপি সদস্য)। স্থানীয়রা ঘাতক পুত্র দিদারুল আলমকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেছে।

মিরসরাই থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জাকির হোসেন এ খবর নিশ্চিত করে বলেন, হত্যাকান্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে নিয়ে আসা হয়েছে। ঘাতক পুত্র দিদারুল আলমকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, গত কয়েকদিন পূর্বে শফিউল আলমের সাথে তার পুত্র দিদারুল আলমের গাছের আম পাড়াকে কেন্দ্র করে ঝগড়া হয়। এ বিষয়ে স্থানীয় সামাজিকভাবে স্থানীয় গণ্যমান্যরা বিরোধটি সুরাহা করে দেন। কিন্তু সোমবার রাত ৮টার দিেেক এ নিয়ে পুণ:রায় পিতা-পুত্রের মধ্যে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে পুত্রের লাঠির আঘাতে বাবার মৃত্যু হয়।

খৈয়াছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহেদ ইকবাল চৌধুরী জানান, ইউনিয়ন পরিষদে সফিউল আলম ও তার পুত্র দিদারুল আলমের একাধিক জায়গাজমি নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ মীমাংসা করে দেওয়া হয়।

কয়েকদিন আগে সফিউল আলম পুত্রের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ নিয়ে এলে তাকে থানায় অভিযোগ করার পরামর্শ দিয়েছিলাম। কিন্তু সোমবার রাতে সফিউল আলমকে ছেলে দিদারুল আলম পিটিয়ে হত্যা করার খবর পেয়ে থানাকে জানানো হয়েছে।