চট্টগ্রামের সেনা সদস্যের স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা, স্বামী গ্রেফতার

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া বেতাগী এলাকায় রুমি বড়ুয়া (৩৬) নামে এক সেনা সদস্যের স্ত্রীকে জবাই করে হত্যা করা হয়েছে। সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে হত্যাকান্ডের এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় পুলিশ সেনা সদস্য রিন্টু বড়ুয়াকে (৩৪) গ্রেফতার করেছে।

পুলিশ সোমবার দুপুরে নিহত রুমি বড়ুয়ার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছেন। নিহত রুমি বড়ুয়া বান্দরবান কালেক্টর স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষক ছিলেন। চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা আজ দুপুর ১২টায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
রাঙ্গুনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি ইমতিয়াজ ভূঁইয়া এ খবর নিশ্চিত করেছেন।

নিহত রুমি বড়ুয়া বান্দরবান সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক দীপ্তি কুমার বড়ুয়ার কন্যা এবং বেতাগী ইউনিয়নের বড়ুয়া পাড়া গ্রামের রিন্টু বড়ুয়ার স্ত্রী। রিন্টু বড়ুয়া একজন সেনা সদস্য। তিনি বন্দরবানে লামা সেনা ক্যাম্পে কর্মরত রয়েছেন।

স্থানীয় লোকজন জানান, রিন্টু বড়ুয়া স্ত্রী রুমি বড়ুয়াকে নিয়ে গতকাল রবিবার বিকালে বাড়িতে আসেন। দীর্ঘ দিন ধরে তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ চলে আসছে। স্ত্রী রুমি বড়ুয়া স্বামী থেকে ২ বছরের বড়। তাছাড়া দীর্ঘ দাম্পত্য জীবনে তাদের কোন সন্তান হচ্ছিল না। এনিয়ে মুলত রিন্টু রুমির মধ্যে অশান্তি ছিল বলে জানান এলাকার লোকজন।
এ অবস্থায় রবিবার মধ্যরাতে কলহের জের ধরে রাত ১২টার দিকে রুমি বড়ুয়াকে গলাকেটে হত্যা করা হয়। পরে রিন্টু বড়ুয়ার চিৎকারে আশপাশের মানুষ ঘটনাস্থলে গিয়ে রুমি বড়ুয়ার গলাকাটা লাশ দেখতে পায়। রিন্টু বড়ুয়া এ সময় কয়েকজন দুর্বৃত্ত এ হত্যাকান্ড ঘটিয়ে চলে যায় বলে দাবি করেন। ঘাতকদের তিনি চিনেন না বলেও জানান।
স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে রাত ২টায় রাঙ্গুনিয়া থানার পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গেলেও পুলিশকে গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধারে বাধা দেন সেনা সদস্য রিন্টু বড়ুয়া। পরে পুলিশ আজ সোমবার দুপুরে গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে।

রাঙ্গুনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইমতিয়াজ ভুঁইয়া বলেন, গৃহবধূর মরদেহ নিতে সেনাবাহিনীর অনুমতির প্রয়োজন বলে জানান রিন্টু বড়ুয়া। ফলে রাতে মরদেহ উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। বিষয়টি চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তাদের জানানো হয়। পরে আজ দুপুরে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, হত্যাকান্ডটি রহস্যজনক বলে মনে হচ্ছে। এ ব্যাপারে কেউ কোনো মুখ খুলছে না। স্থানীয়দের মতে স্বামী  এ ঘটনা ঘটিয়েছে। তাই উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে স্বামী রিন্টু বড়ুয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে।