চট্টগ্রামে অগ্নিকান্ডে অর্ধ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

চট্রগ্রাম প্রতিনিধি:

চট্টগ্রাম মহানগরীতে ৩টি পৃথক অগ্নিকান্ডে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এতে প্রায় অর্ধ কোটি টাকার সম্পদ পুড়ে গেছে। আজ মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) ভোরে নগরীর ডবলমুরিং থানার হাজিপাড়া, পাহাড়তলী থানার অলংকার শপিং কমপ্লেক্স, এবং বাকলিয়া থানার পূর্ব বাকলিয়া এলাকায় এসব অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে।

ফায়ার সার্ভিস চট্টগ্রাম বিভাগের উপ-সহকারী পরিচালক মো. জসিম উদ্দিন এসব অগ্নিকান্ডের বিষয় নিশ্চিত করে জানান, নগরীর পাহাড়তলী থানার অলংকার শপিং মার্কেটে ভোর ৬টা ৫০ মিনিটে অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত হলে খবর পেয়ে নগরীর আগ্রবাদ ও বন্দর ফায়ার স্টেশন থেকে দুটি ইউনিটের ৪টি গাড়ি গিয়ে ৩৫ মিনিট চেষ্টার পর ৭টা ২৫ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণ করেছে। এসময় ২টি ইলেকট্রনিক্সের দোকান পুড়ে গিয়ে ৯ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সুত্রপাত হয়েছিল। ফায়ার সার্ভিস মার্কেটটির প্রায় ৫০ লাখ টাকার সম্পদ রক্ষা করতে পেরেছে।

এর আগে ভোর পৌনে ৬টায় নগরীর পূর্ব বাকলিয়া আব্দুল লতিফ হাটে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে একটি মশার কয়েল তৈরীর কারখানা ও একটি মিনালের ওয়াটার কাখানায় আগুন লেগে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। আগুন লাগার খবর পেয়ে নগরীর লামা বাজার ও নন্দনকান স্টেশন থেকে দুই ইউনিপের ৫টি গাড়ি গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে। প্রায় দেড় ঘন্টা চেষ্টার পর সকাল সোয়া ৭টায় আগুন নিয়ন্ত্রনে এসেছে বলে জানায় ফায়ার সার্ভিস। অগ্নিকান্ডে দুটি কারখানা পুড়ে গিয়ে অন্তত ২০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের কারণে ২ কোটি টাকার সম্পদ রক্ষা পেয়েছে বলে দাবী করেন ফায়ার কর্মকর্তা জসিম উদ্দিন।

এদিকে নগরীর ডবলমুরিং থানার হাজীপাড়াস্থ নূরুল আবছার কলোনীতে ভোর রাত সাড়ে ৩টায় অগ্নিকান্ডের সুত্রাপাত হয়। নগরীর আগ্রাবাদ ও বন্দর স্টেশন থেকে দুটি ইউনিটের ৮টি গাড়ি গিয়ে ২ ঘন্টার চেষ্টার পর ভোর সাড়ে ৫টায় আগুন নিয়ন্ত্রণ করেছে। আগুনে কলোনীর ৩ লাইনের ২৪টি কাঁচা ঘর সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে। এতে ১০ লাখ টাকার ক্ষতি এবং ৫০ লাখ টাকার সম্পদ রক্ষা করা সম্ভব হয়েছে বলে জানায় ফায়ার কন্ট্রোল রুম।