চট্টগ্রামে এক উন্মাদের আড়াই ঘণ্টার তান্ডব!

বোয়ালখালীতে পুলিশের এসআইসহ চারজনকে কুপিয়ে জখম

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে এক উন্মাদ আড়াই ঘণ্টার তান্ডব চালিয়ে পুলিশসহ চারজনকে কিরিচ দিয়ে কুপিয়ে আহত করেছে। আজ বৃহস্পতিবার (১৩ জুলাই) বিকেলে পৌর সদরের পূর্ব গোমদন্ডী মুজাহিদ চৌধুরী পাড়ার ফকির বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটেছে।

আহতরা হলেন, বোয়ালখালী থানার উপ-পরিদর্শক মো. ফারুখ (৩৫), সহকারী উপ-পরিদর্শক মো. আহসান সুমন (৩৩), কনস্টেবল মো. শফিকুর (৩২) ও পূর্ব গোমদন্ডী মুজাহিদ চৌধুরী পাড়ার আক্তারুজ্জামানের স্ত্রী রেহানা আক্তার (৩৫)। এছাড়া গুলিবিদ্ধ পূর্ব গোমদন্ডী মুজাহিদ চৌধুরী পাড়ার মরহুম নুরুল হকের ছেলে মো. ফোরকান (৩২)।
পূর্ব গোমদন্ডী মুজাহিদ চৌধুরী পাড়ার ফকির বাড়ীর মরহুম নুরুল হকের ৪র্থ ছেলে মো. ফোরকান (৩২) কিরিচ দিয়ে বিকেল তিনটা থেকে পৌনে ৫টা পর্যন্ত এ তান্ডব চালায়। সে মানষিক রোগী বলে জানাগেছে।

আহতদের মধ্যে ফারুখ, রেহানা আক্তার ও গুলিবিদ্ধ ফোরকানকে উপজেলা হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেও সহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার দেবব্রত চ্যার্টাজী।

স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর সুনীল চন্দ্র ঘোষ বলেন, বিকেল তিনটার দিকে পূর্ব গোমদন্ডী মুজাহিদ চৌধুরী পাড়ার মরহুম নুরুল হকের ছেলে মো. ফোরকান (৩২) কিরিচ দিয়ে তার চাচাত ভাইয়ের স্ত্রীকে কুপিয়ে আহত করে।

এরপর সে রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করলে বোয়ালখালী থানা পুলিশের একটি দল তাকে নিবৃত্ত করা চেষ্টা করলে সে পুলিশের উপর হামলে পড়ে। এ সময় কয়েকজন পুলিশ সদস্য আহত হন। পরে পুলিশ গুলি চালিয়ে তাকে নিবৃত্ত করে।

এ সময় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে জানিয়ে স্থানীয় নরুন্নবী চৌধুরী বলেন, এসময় সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। সে কিরিচ নিয়ে এলোপাতাড়ি হামলার চেষ্ঠা চালালে পরে বোয়ালখালী থানার একাধিক পুলিশ সদস্যরা তাকে আটক করতে সক্ষম হয়।

জানাগেছে, এর কয়েক মাস আগেও সে তার স্ত্রীকে বটি দিয়ে কুপিয়ে আহত করেছিল। ফলে তার স্ত্রী একমাত্র দুই বছর বয়সী কন্যাকে নিয়ে বাপের বাড়িতে চলে যায়।
বোয়ালখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সালাহ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, পুলিশ অনেক কষ্ট করে তাকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।