চট্টগ্রামে বিএনপির মিছিল থেকে পুলিশের ওপর হামলা, ওসিসহ ৫ পুলিশ আহত

চট্টগ্রামে বিএনপির একটি মিছিল থেকে পুলিশের ওপর হামলায় ওসিসহ ৫ পুলিশ আহত হয়েছে। পুলিশের ওপর হামলায় জড়িত ২ জনকে ঘটনাস্থল থেকে আটক করা হয়েছে।
আনোয়ারা উপজেলার চাতরী চৌমুহনী এলাকায় আজ বুধবার দুপুরে এ হামলা হয়।
আনোয়ারা থানা পুলিশ জানিয়েছে, অবরোধের সমর্থনে পটিয়া-আনোয়ারা-বাঁশখালী (পিএবি) সড়কের চাতরী চৌমুহনী এলাকায় দুপুর ১ টার দিকে বিএনপি একটি মিছিল বের করে। খবর পেয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহেল আহমেদ ও ওসি (তদন্ত) মোহাম্মদ মহিউদ্দিনসহ পুলিশের একটি দল যেকোনো ধরণের নাশকতা ঠেকাতে বেশ কিছু দূর থেকে মিছিলকে অনুসরণ করছিল। মিছিলটি অল্প কিছুদূর গিয়ে শশী ক্লাবের মোড়ে রাস্তায় ব্যারিকেড দিয়ে অবরোধ পালনের চেষ্টা করে। এ সময় মিছিলকারীরা একটি গাড়ি ভাঙচুর করে। পুলিশ দ্রুত এসে গাড়িটিকে রক্ষার চেষ্টা করলে তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে নিজেদের সঙ্গে করে আনা ইট-পাটকেল ছোঁড়ে এবং লাঠি দিয়ে পুলিশকে মারধর করে। এক পর্যায়ে পাশের একটি নির্মাণাধীন ভবনের সামনে রক্ষিত ইটপাটকেল নিয়ে ছুঁড়তে থাকে তারা। এতে ওসি সোহেল আহমেদ, ওসি (তদন্ত) মো. মহিউদ্দিনসহ পাঁচ পুলিশ আহত হয়েছে। তাদেরকে তাৎক্ষণিক আনোয়ারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়।
ওসি (তদন্ত) মো. মহিউদ্দিন সাংবাদিকদের জানান, ‘অগ্নিসন্ত্রাস ও নাশকতা রোধে আমরা কর্তব্য পালন করছিলাম। শশী ক্লাবের সামনে বিএনপির নেতাকর্মীরা সড়কে গাড়ি ভাঙচুর শুরু করলে আমরা তাদের বাধা দিতে চেষ্টা করতেই তারা আমাদের ওপর হামলা করে। আমাদের গাড়িও ভাঙচুর করে তারা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ এখানে ৮ রাউন্ড গুলি ছুঁড়ে। এতে মিছিলকারীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়।’
আনোয়ারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. মামুনুর রশীদ বলেন, ‘দুপুরে গুরুতর আহত অবস্থায় থানার ওসিকে হাসপাতালে আনা হয়। তার ডান চোখে রক্তক্ষরণ হচ্ছিল এবং চোখের পাশে বেশ গভীর ক্ষত সৃষ্টি হয়েছে। এখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছি আমরা।’

বিডিসংবাদ/এএইচএস