চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের নির্বাচনে ফজলুল করিম-আঞ্জুমান আরা প্যানেল বিজয়ী

চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ  চট্টগ্রামের মা ও শিশু হাসপাতাল কার্যনির্বাহী কমিটি ২০১৭-২০২০ সালের জন্য অনুষ্ঠিত এই নির্বাচনে প্রফেসর ডা. এএসএম ফজলুল করিম-ডা. আঞ্জুমান আরা ইসলাম, ডা. মোহাম্মদ আরিফুল আমীন পরিষদ পূর্ণ প্যানেলে বিজয়ী হয়েছে। শনিবার রাতে ঘোষিত ফলাফলে তাদের বিজয়ী ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশন।
এর আগে শনিবার সকাল আটটা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। বিকেলে চারটা পর্যন্ত টানা ভোট গ্রহণ চলে। প্রতিষ্ঠানের প্রায় নয় হাজার ভোটারের মধ্যে ২৮৫৩ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন।
চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের নির্বাচনে এবার প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ডা. এএসএম ফজলুল করিম, ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ডা. এমএ তাহের খান, ভাইস প্রেসিডেন্ট এসএম মোরশেদ হোসেন, ভাইস প্রেসিডেন্ট মাহফুজুর রহমান, ট্রেজারার মোহাম্মদ রেজাউল করিম আজাদ, ডোনার মেম্বার ইঞ্জিনিয়ার লায়ন মোহাম্মদ জাবেদ আবছার চৌধুরী এবং ডোনার মেম্বার ডা. মোহাম্মদ পারভেজ ইকবাল শরীফ বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।
গতকাল একজন জেনারেল সেক্রেটারি, একজন জয়েন্ট জেনারেল সেক্রেটারি এবং ১৩ জন সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে ডা. আঞ্জুমান আরা ইসলাম জেনারেল সেক্রেটারি এবং ডা. মোহাম্মদ আরিফুল আমীন জয়েন্ট সেক্রেটারি নির্বাচিত হয়েছেন।
নির্বাচনে প্রফেসর এএসএম ফজলুল করিম, ডা. আঞ্জুমান আরা ইসলাম, ডা. আরিফুল আমীন পরিষদ পূর্ণ প্যানেলে বিজয় লাভ করেন। নির্বাচনে জেনারেল সেক্রেটারি পদে ডা. আঞ্জুমান আরা ইসলাম পেয়েছেন ২০৯৮ ভোট ও তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আবদুল মান্নান রানা পেয়েছেন ৬৪৭ ভোট। জয়েন্ট জেনারেল সেক্রেটারি পদে ডা. মোহাম্মদ আরিফুল আমীন পেয়েছেন ১৯২৩ ভোট ও তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মোহাম্মদ সাগির পেয়েছেন ৮২২ ভোট। মেম্বার পদে প্রফেসর ফজলুল করিম, ডা. আঞ্জুমান আরা পরিষদের সকল সদস্য জয় লাভ করেন।

মেম্বার পদে নির্বাচিতগণ হলেন ডা. কামরুন নাহার দস্তগীর (২৩৫৭ ভোট), মোহাম্মদ আনোয়ারুল ইসলাম (২২৯২ ভোট), ইঞ্জিনিয়ার এম আলী আশরাফ (২২৬০), মিসেস রেখা আলম চৌধুরী (২১৭৫ ভোট), মোহাম্মদ সানাউল্লাহ (২১০৬ ভোট), আলহাজ মোহাম্মদ আহসান উল্লাহ (২১০৫ ভোট), এসএম কুতুব উদ্দিন (২০৯৩ ভোট), মোহাম্মদ জাহিদুল হাসান (২০৮৯ ভোট), আলহাজ্ব মোহাম্মদ হারুন ইউছুপ (১৯৬৮ ভোট), ডা. মোহাম্মদ ফয়সাল ইকবাল চৌধুরী (২০২৫ ভোট), এম. জাকির হোসেন তালুকদার (১৯৮৮ ভোট), ডা. সাজ্জাদ মোহাম্মদ ইউসুফ (১৯৬৯ ভোট) ও খায়েজ আহমদ ভুঁইয়া (১৯৪৮ ভোট)।

নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেছিলেন চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) সৈয়দা সরোয়ার জাহান। গত রাতে ভোট গণনা শেষে তিনি নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করেন।