নারায়ণগঞ্জে আলোচিত ৭ খুনের পূর্নাঙ্গ রায় প্রকাশ হচ্ছে রোববার

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ

আগামী রোববার নারায়ণগঞ্জের আলোচিত ৭ খুন মামলার পূর্নাঙ্গ রায় প্রকাশ করবেন নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক সৈয়দ এনায়েত হোসেন। এরপর রায়ের আদেশের নকল বাদিপক্ষ ও আসামীদেরসহ সংশ্লিষ্ট দফতরে পেপ্রণ করা হবে। বৃহস্পতিবার বিকেলে রাষ্ট্রপক্ষের কৌশলী জেলা আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট ওয়াজেদ আলী খোকন এ তথ্য জানান।

অ্যাডভোকেট ওয়াজেদ আলী খোকন জানান, গত ১৬জানুয়ারী নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক সৈয়দ এনায়েত হোসেন আলোচিত সাত খুন মামলার প্রধান আসামী নাসিকের বরখাস্তকৃত সাবেক কাউন্সিলর নূর হোসেন, র‌্যাবের সাবেক অধিনায়ক (চাকুরীচ্যুত) লেফটেন্যান্ট কর্নেল (অব:) তারেক সাঈদ মোহাম্মদ, সাবেক উপ অধিনায়ক মেজর (অব:) আরিফ হোসেন ও সাবেক ক্যাম্প ইনচার্জ লেফটেন্যান্ট কমান্ডার (অব:) এম এম রানাসহ ২৬ জনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। বাকি ৯ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড প্রদান করেছেন। আগামী রোববার ২২ জানুয়ারী সকালে একই আদালতের বিচারক সৈয়দ এনায়েত হোসেন আদালতে পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করবেন। এরপর রায়ের আদেশের নকল বাদিপক্ষ ও আসামীদের সহ সংশ্লিষ্ট দফতরে প্রেরণ করা হবে।

মৃত্যুদন্ড আসামীরা হলো গ্রেপ্তার থাকা প্রধান আসামী নূর হোসেন, র‌্যাবের চাকুরীচ্যুত কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কর্নেল তারেক মোহাম্মদ সাঈদ, মেজর আরিফ হোসেন, লেফটেন্যান্ট কমান্ডার মাসুদ রানা (এমএম রানা), হাবিলদার এমদাদুল হক, আরওজি-১ আরিফ হোসেন, ল্যান্সনায়েক হীরা মিয়া, ল্যান্সনায়েক বেলাল হোসেন, সিপাহী আবু তৈয়্যব, কনস্টেবল মো: শিহাব উদ্দিন, এসআই পুর্নেন্দ্র বালা, র‌্যাবের সদস্য আসাদুজ্জামান নূর, আলী মোহাম্মদ, মিজানুর রহমান দিপু, রহম আলী, আবুল বাশার, নূর হোসেনের সহযোগী মোর্তুজা জামান চার্চিল। পলাতক মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্তরা হলো নূর হোসেনের সহযোগি সেলিম, সানাউল্লাহ সানা, শাহজাহান, জামালউদ্দিন, সৈনিক আবদুল আলীম, সৈনিক মহিউদ্দিন মুন্সী, আলামিন শরিফ, তাজুল ইসলাম, এনামুল কবীর। এসব আসামীদের বিরুদ্ধে অপহরণ ও হত্যার অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে।

কারাদন্ড ৯ জনের অপহরণের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় গ্রেপ্তার আসামিদের মধ্যে করপোরাল রুহুল আমিনের ১০ বছর, এএসআই বজলুর রহমানের ৭ বছর, হাবিলদার নাসির উদ্দিনের ৭ বছর, এএসআই আবুল কালাম আজাদের ১০ বছর, সৈনিক নুরুজ্জামানের ১০ বছর, কনস্টেবল বাবুল হাসানের ১০ বছর কারাদন্ড হয়েছে। পলাতক আসামিদের মধ্যে হাবিবুর রহমানের ১৭ বছর, কামাল হোসেনের ১০ বছর ও মোখলেসুর রহমানের ১০ বছর কারাদন্ড হয়েছে।