পার্বতীপুরে ভিজিএফ’র গম কালো বাজারে বিক্রির অভিযোগ : থানায় মামলা

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুরের পার্বতীপুরে ২নং মন্মথপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আজগর আলী ও দুই মেম্বারের বিরুদ্ধে ভিজিএফ”র গম চুরির অভিযোগ পাওয়া গেছে।
গত ২৫ জুন রোববার পার্বতীপুর মডেল থানা পুলিশ  ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন চাকলা বাজার থেকে ১১ বস্তা গম উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। জানা যায়, উপজেলা মন্মথপুর ইউনিয়নে ১৯০৯ জন দুস্থ সদস্যদের জন্য ১.০৯০ মে. টন চালের পরিবর্তে ২৫.৩৩৬২ মে. টন গম বরাদ্দ দেয়া হয়। এর মধ্যে ১১ বস্তা গম (৫০ কেজি প্রতি বস্তা) চাকলা বাজারের আব্দুল জব্বারের পুত্র বাবুর দোকানের বারান্দা থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এলাকাবাসী জানায়, মন্মথপুর মুন্সীপাড়া এলাকার আবু বকরের পুত্র অহিদুল ও আইজ উদ্দীনের ছেলে ফরিদুল ইসলাম রোববার ভোরে মন্মথপুর ইউনিয়ন পরিষদের গোডাউন থেকে ভোর বেলা গমের বস্তাগুলো বের করে বাবু নামের এক ব্যবসায়ীর দোকানের বারান্দায় জমা করছিল হানিফ দাফাদার। পরে এলাকাবাসী টের পেয়ে তাদের হাতেনাতে ধরে ফেলে।

২৪ জুন শনিবার দুস্থদের মাঝে ১৩ কেজি ২০০গ্রাম করে গম বিতরণের কথা থাকলেও ১০ কেজি করে গম দেয়া হয়। এসময় ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম পুলিশ, মেম্বর ও চেয়ারম্যানের সাথে এলাকাবাসীর সংর্ঘষে মোসলেম উদ্দীন, হারুন, আতোয়ার, কাফি সরদার, শাকিব, আঃ শাফি, মোহাম্মাদ হারুন, জামিউলসহ ৮ থেকে ১০ জন আহত হয়। ২৮ জুন বুধবার বিকালে পার্বতীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার তরফদার মাহমুদুর রহমানের নিকট বিচারের দাবীতে এ বিষয়ে লিখিত একটি অভিযোগ করেন এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার তরফদার মাহমুদুর রহমানের নিকট জানতে চাইলে বলেন, ঘটনাটি জানতে পেরে তিনি ত্রাণ ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা করার নির্দেশ দিয়েছি।

পরে পার্বতীপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা(পিআইও) মোঃ তাজুল ইসলাম সরেজমিনে তদন্ত করে বাদী হয়ে পার্বতীপুর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন যার মামলা নম্বর ৩৭।