প্রিমিয়ার লিগে প্রথম নারী রেফারি হিসেবে ইতিহাস রচনা করলেন ওয়েলচ

ইংলিশ ফুটবল লিগে ম্যাচ পরিচালনা করে প্রথম নারী রেফারি হিসেবে ইতিহাসের পাতায় জায়গা করে নিয়েছেন রেবেকা ওয়েলচ। শনিবার ক্রাভেন কটেজে ফুলহ্যামের বিপক্ষে বার্নলির ২-০ গোলে জয় পাওয়া এ্যাওয়ে ম্যাচটি তিনি পরিচালনার দায়িত্ব পান।
৪০ বছর বয়সী ওয়েলচ ইংল্যান্ডের উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় শহর ওয়াশিংটনের বাসিন্দা। ২০১০ সালে রেফারিং ক্যারিয়ার শুরু করার সময় তিনি ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসে (এনএইচএস) কর্মরত ছিলেন। ২০২১ সালে তিনি আনুষ্ঠানিক র‌্যাঙ্কপ্রাপ্ত হক। গতকাল ইংলিশ ফুটবল লিগে প্রথম নারী রেফারি হিসেবে কাজ করার জন্য মনোনীত হন। হ্যারোগেট বনাম পোর্ট ভ্যালের মধ্যকার চতুর্থ টায়ারের ম্যাচ পরিচালনার মধ্য দিয়ে প্রথম বড় ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্ব পান।
এরপর একে একে প্রথম নারী রেফারি হিসেবে কাজ করেছেন চ্যাম্পিয়নশীপ ও এফএ কাপের তৃতীয় রাউন্ডের ম্যাচে। লন্ডনের গতকাল ভিটিনহোর বিপক্ষে তার একটি হ্যান্ডবলের সিদ্ধান্ত ভিএআর বাতিল করে দেয়। উভয় দলকেই বেশ কয়েকবার এ্যাডভানটেজ দিয়ে তিনি পুরস্কৃত করেছেন। ২৫ মিনিটে জোস ব্রাউনহিল ফাউলের অপরাধে ওয়েলচ কালভিন বাসেকে ম্যাচের প্রথম হলুদ কার্ড দেখান। বেশ সতর্কতার সাথেই প্রথম ম্যাচটি পরিচালনা করেছেন ওয়েলচ।
ম্যাচ শুরুর আগে আনুষ্ঠানিক ভাবে যখন ম্যাচ রেফারি হিসেবে ওয়েলচের নাম ঘোষনা করা হয় তখন দর্শকরা হাততালি দিয়ে তাকে অভিবাদন জানিয়েছেন।
যদিও সফরকারীদের পক্ষে প্রথমে কিছু সিদ্ধান্ত যাওয়া ওয়েলচের বিপক্ষে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন ফুলহ্যাম সমর্থকরা। তবে শেষ পর্যন্ত নিজেকে প্রমানের মাধ্যমেই প্রিমিয়ার লিগের অভিষেকটা স্মরণীয় করে রাখলেন ওয়েলচ।
গত মাসে প্রিমিয়ার লিগে ফুলহ্যাম বনাম ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মধ্যকার ম্যাচে চতুর্থ অফিসিয়াল হিসেবে দায়িত্ব পালন করে প্রথম নারী রেফারি হিসেবে আরো একটি ইতিহাস গড়েছেন ওয়েলচ।
নারী ফুটবলে বেশ কিছু হাই-প্রোফাইল ম্যাচ পরিচালনার কৃতিত্ব রয়েছে ওয়েলচের। এ বছর নারী বিশ^কাপেও তিনি রেফারির দায়িত্ব পালন করেছেন।
বিডিসংবাদ/এএইচএস