সিরি-এ: রেলিগেশনে থাকা এম্পোলির কাছে পয়েন্ট হারালো জুভেন্টাস

চার বছরের মধ্যে প্রথমবারের মত সিরি-এ শিরোপা জয়ে এগিয়ে থাকা জুভেন্টাস শনিবার বড় ধাক্কা খেয়েছে। রেলিগেশনে থাকা তলানির দল এম্পোলির সাথে ১-১ গোলে ড্র করে পয়েন্ট হারিয়েছে তুরিনের জায়ান্টরা। দিনের আরেক ম্যাচে বোলোনিয়ার সাথে ২-২ গোলে ড্র করেছে এসি মিলান।
তুরিনের আলিয়াঁজ এ্যারেনাতে ৭০ মিনিটে টমাসো বালডানজির গোলে এম্পোলি স্বাগতিক জুভেন্টাসকে হতাশ করেন। এই ড্রয়ে ইন্টার মিলানের থেকে চার পয়েন্টের ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ নষ্ট করেছে জুভেন্টাস। দুই ম্যাচ কম খেলে জুভেন্টাসের থেকে দুই পয়েন্ট পিছিয়ে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ইন্টার।
মাসিমিলিয়ানো আলেগ্রির দলকে ম্যাচের প্রায় ৭০ মিনিটই ১০ জন নিয়ে খেলতে হয়েছে। ১৮ মিনিটে আলবার্তো কেরিকে বিপদজনক ভাবে ফাউলের অপরাধে আরকাডিয়াস মিলিককে সরাসরি লাল কার্ড দেখানো হলে জুভেন্টাস ১০ জনের দলে পরিণত হয়। এই ড্রয়ে সব ধরনের প্রতিযোগিতায় জুভেন্টাসের টানা সপ্তম জয়ের ধারা শেষ হলো। আগামী সপ্তাহে সান সিরো সফরে ইন্টারের বিপক্ষে ম্যাচের আগে জুভেন্টাসের জন্য এই ম্যাচে জয়টা জরুরী ছিল।
এ সম্পর্কে আলেগ্রি বলেছেন, ‘ডার্বি অব ইতালি’ ম্যাচে সবসময়ই দারুন একটি লড়াই হয়ে থাকে। এই ম্যাচ খেলাটা সবসময়ই অসাধারণ এক অনুভূতি। পুরো স্টেডিয়াম কানায় কানায় পূর্ণ থাকে। আজকের ম্যাচে ফলাফল যাই হোক না কেন তা আগামী ম্যাচে কোন প্রভাব ফেলবে না। আমরা ভাল করার চেষ্টা করবো। লিগে সেরা দলই ফেবারিট হিসেবে শিরোপা জয় করে থাকে।’
৫০ মিনিটে কর্ণার থেকে ডুসান ভøাহোভিচের গোলে জুভেন্টাস এগিয়ে গিয়েছিল। সব ধরনের প্রতিযোগিতায় সার্বিয়ান স্ট্রাইকারের এটি ষষ্ঠ গোল। কিন্তু ২০ মিনিট পর বালডানজির গোলে এম্পোলি সমতা ফেরানোর পর জুভেন্টাস শিবিরে দু:শ্চিন্তা নেমে আসে। জানুয়ারি ট্রান্সফার উইন্ডো শেষ জবার আগেই বালডানজির এম্পোলি ছেড়ে রোমায় যোগ দেবার গুঞ্জন রয়েছে।
এই ড্রয়ের পরও অবশ্য এম্পোলি রেলিগেশন জোন থেকে বেরিয়ে আসতে ব্যর্থ হয়েছে। ১৭ পয়েন্ট নিয়ে ডেভিড নিকোলাসের দল এই মুহূর্তে ১৯তম স্থানে রয়েছে। রেলিগেশন জোনের ঠিক উপরে থাকা কালিয়ারি ও উদিনেসের থেকে এম্পোলি মাত্র এক পয়েন্ট নীচে রয়েছে।
আটালান্টার কাছে ২-০ গোলে পরাজিত হয়ে উদিনেস টেবিলের ১৬তম স্থানে রয়েছে। এই জয়ে ফিওরেন্টিনাকে পিছনে ফেলে টেবিলের চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে আটালান্টা।
আগের ম্যাচে বর্ণবাদের শিকার গোলরক্ষক মাইক মেইগন্যানের প্রতি সম্মান জানিয়েছে এসি মিলান। সান সিরোতে ঘরের মাঠে বোলোনিয়ার বিপক্ষে ম্যাচটিতে ১৬ মিনিটে ম্যাচ বন্ধ করে মেইগন্যানের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়। এটি মেইগন্যানের জার্সি নম্বর। এ সময় জায়ান্ট স্ক্রিনে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক অধিকার আন্দোলনের নায়ক মার্টিন লুথার কিংয়ের একটি বার্তা ভেসে উঠে যেখানে লেখা ছিল , ‘অন্ধকার কোনদিনও অন্ধকার দুর করতে পারেনা, শুধুমাত্র আলোই তা করতে পারে। গত সপ্তাহে উদিনেসের বিপক্ষে মাঠে নেমে বর্ণবাদের শিকার হয়েছিলেন মেইগন্যান। এই প্রতিবাদের মাধ্যমে কিছুটা হলেও মেইগন্যানের পাশে দাঁড়াতে পেরেছে তার ক্লাব।
৪২ ও ৭৪ মিনিটে অলিভার গিরুদ ও থিও হার্নান্দেজ দুটি পেনাল্টির সুযোগ মিস না করলে ম্যাচের ফল হয়তো ভিন্ন হতে পারতো। বিপরীতে রিকার্ডো ওরসোলিনি স্টপেজ টাইমে পেনাল্টি থেকে গোল করে বোলোনিয়াকে গুরুত্বপূর্ণ এক পয়েন্ট উপহার দিয়েছেন। টেবিলের শীর্ষে থাকা জুভেন্টাসের থেকে সাত পয়েন্ট পিছিয়ে রয়েছে মিলান।
কোচ সাও পাওলি ম্যাচ শেষে স্কাই স্পোর্টসকে বলেছেন, ‘জিততে না পারায় আমরা দু:খ প্রকাশ করছি। দুটি পেনাল্টি মিস হয়েছে। আমরা সুযোগ তৈরী করেছি, এমনকি নিজেরাও দুটি গোল হজম করেছি। কঠিন একটি ম্যাচে আমরা পিছিয়ে থেকেও ফিরে এসেছি। এগিয়ে যাবার পরও আমরা সেটা ধরে রাখতে পারিনি। সব মিলিয়ে আজকের পারফরমেন্স মোটেই সন্তোষজনক ছিলনা।’
৩৯ মিনিটে মিলান প্রথম পেনাল্টি পাবার পর বাজেভাবে রেফারির সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়ে ডাগ আউট ছাড়তে বাধ্য হন বোলোনিার কোচ থিয়াগো মোত্তা। ইন্টারের হয়ে ট্রেবল জয়ী সাবেক মিডফিল্ডার মোত্তা বলেছেন, ‘মিলান আজ জয়ের জন্য পুরো ম্যাচে চেষ্টা করেছে। রেফারিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে আমি কোন কথা বলবো না। এটা ক্লাবের ব্যপার। আমি শুধুমাত্র আমার দল নিয়ে কথা বলতে পারি। তবে আমাদের পারফরমেন্স দুর্দান্ত ছিল।’
জসুয়া জিরকির ২৯ মিনিটের গোলে এগিয়ে গিয়েছিল বোলোনিয়া। ৪৫ মিনিটে রুবেন লোফতাস-চিক মিলানকে সমতা ফেরায়। ম্যাচ শেষের ৭ মিনিট আগে শক্তিশালী হেডে নিজের দ্বিতীয় গোলে মিলানকে এগিয়ে দেন লোফতাস-চিক। কিন্তু ইনজুরি টাইমে ডি বক্সের ভিতর ভিক্টর ক্রিস্টিয়ানসেরকে জার্সি ধরে ফেলে দেন বদলী খেলোয়াড় ফিলিপো টেরাসিয়ানো। স্পট কিক থেকে ওরসোলিনি বোলোনিয়াকে সমতায় ফেরান।
বিডিসংবাদ/এএইচএস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here