সুইডেনে তুর্কি দূতাবাসের সামনে কুরআন পোড়াল উগ্রপন্থীরা

বিডিসংবাদ অনলাইন ডেস্কঃ

স্টকহোমে তুর্কি দূতাবাসের সামনে উগ্রপন্থীদের পবিত্র কুরআন পোড়ানোর জন্য সুইডেনের কাছে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে তুরস্ক। সৌদি আরবসহ বেশ কয়েকটি আরব দেশও এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছে।

সুইডেনের ন্যাটো সদস্যপদপ্রাপ্তি নিয়ে তুরস্কের আপত্তির প্রেক্ষাপটে এ ঘটনা ঘটল।

শনিবার বিকেলে স্টকহোমে তুর্কি দূতাবাসের সামনে বিক্ষোভের সময় অতি উগ্রপন্থী স্ট্রাম কুরস (হার্ড লাইন) পার্টির রাজনীতিবিদ রাসমাস পালুদান পবিত্র কুরআনের একটি খণ্ডে আগুন দেন। একই সময় কুর্দিদের একটি বিক্ষোভও সেখানে অনুষ্ঠিত হয়।

তুরস্ক স্টকহোমে তার দূতাবাসের সামনে কুরআন পোড়ানোসহ বিক্ষোভ আয়োজন করায় সুইডেনের নিন্দা করে।

আঙ্কারা শনিবার জানিয়েছিল, ন্যাটোর সদস্যপদ লাভে তুরস্কের আপত্তি দূর করার লক্ষ্যে সুইডেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সফর বাতিল করা হচ্ছে। সামরিক জোটটিতে সুইডেনের প্রবেশের জন্য দেশটির তুরস্কের সমর্থন প্রয়োজন। ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার পর ভয় বাড়ার প্রেক্ষাপটে দেশটি এখন ন্যাটোতে যোগ দিতে চাচ্ছে। কিন্তু ন্যাটোর সদস্য তুরস্ক তাতে বাধা দিয়ে আসছে।

সৌদি আরব, জর্ডান, কুয়েত, পাকিস্তান, তুরস্কসহ বেশ কয়েকটি দেশ কুরআন পোড়ানোর নিন্দা জানিয়েছে। সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়, ‘সৌদি আরব সংলাপ, সহিষ্ণুতা ও সহাবস্থানের মূল্যবোধের বিস্তারের আহ্বান জানাচ্ছে এবং ঘৃণা ও চরমপন্থাকে প্রত্যাখ্যান করছে।’

সূত্র : আলজাজিরা, বিবিসি, জিও নিউজ ও অন্যান্য

বিডিসংবাদ/এএইচএস