সুইডেনে ফের কোরআন অবমাননা : ফুঁসে উঠছে মুসলিম বিশ্ব

বিডিসংবাদ অনলাইন ডেস্কঃ

সুইডেনে বৃহস্পতিবার ফের পবিত্র কোরআনের অবমাননা হয়েছে। এ ঘটনায় ফুঁসে উঠছে মুসলিম বিশ্বের প্রভাবশালী একাধিক রাষ্ট্র ও আন্তর্জাতিক ইসলামী সংস্থা।

শুক্রবার বিষয়টিকে বেশ গুরুত্ব দিয়ে বিশেষ একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা মুবাশির।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, স্টকহোমে ফের পবিত্র কোরআনের অবমাননায় কড়া ভাষায় সমালোচনা করেছে তুরস্ক।

দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, আজ (বৃহস্পতিবার) রাজধানী স্টকহোমে অবস্থিত ইরাকি দূতাবাসের সামনে আমাদের পবিত্র কিতাবের ওপর নিষ্ঠুর অবমাননা হয়েছে। তুরস্ক এই জঘন্য আক্রমণের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে এবং একইসাথে সুইডেনকে ইসলামের বিরুদ্ধে এই বিদ্বেষমূলক অপরাধ প্রতিরোধে সিদ্ধান্তমূলক ব্যবস্থা নেয়ারও আহ্বান জানায়।

বৃহস্পতিবার ঘটনার কঠোর সমালোচনা করেছে সৌদি আরবও। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, তারা রিয়াদে অবস্থিত সুইডিশ দূতাবাসের চার্জ ডি অ্যাফেয়ার্সকে তলব করেছে এবং পবিত্র কোরআন পোড়ানো ও অবমাননার প্রতিবাদ জানিয়ে স্মারকলিপি প্রদান করেছে।

ইরানের সরকারি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, তেহরানে নিযুক্ত সুইডিশ রাষ্ট্রদূতকে বৃহস্পতিবার তলব করেছে সেখানকার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং পবিত্র কোরআন অবমাননার বিষয়ে কঠোর প্রতিবাদ জানিয়েছে দেশটি।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতারও সৌদি আরবের মতো প্রতিবাদী স্মারকলিপি প্রদান করেছে দেশটিতে নিযুক্ত সুইডিশ রাষ্ট্রদূতের কাছে। কাতার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় রাষ্ট্রদূতকে তলবের পর স্মারকলিপিটি প্রদান করে।

এ ঘটনায় সবচেয়ে বড় পদক্ষেপের ঘোষণা দিয়েছে ইরাক। দেশটির প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ শিয়া আল সুদানি সুইডেনে নিযুক্ত তার দেশের চার্জ ডি অ্যাফেয়ার্সকে প্রত্যাহার ও তার দেশ থেকে সুইডিশ রাষ্ট্রদূতকে ইরাক ত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন।

এদিকে, এবারের ঘটনায়ও বরাবরের মতো সরব আন্তর্জাতিক ইসলামী সংস্থাগুলো। হিজবুল্লাহর মহাসচিব হাসান নাসরুল্লাহ মুসলিম দেশগুলোর প্রধানদের সুইডেন থেকে তাদের রাষ্ট্রদূতদের প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়েছেন এবং একইসাথে তাদের দেশ থেকে সুইডিশ রাষ্ট্রদূতদের বহিষ্কারের অনুরোধ করেছেন। পবিত্র কোরআন অবমাননার প্রতিবাদে যেমনটি করেছে ইরাক।

সুইডেনের এ অপরাধের নিন্দা জানিয়েছে ইসলামী সহযোগিতা সংস্থা ওআইসি-ও। সংস্থাটির মহাপরিচালক হোসাইন ইবরাহিম ত্বহা সুইডেনের কড়া সমালোচনা করে বলেন, স্টকহোমে ইরাক দূতাবাসের সামনে ফের কোরআন অবমাননা একটি উসকানিমূলক কাজ।

হোসাইন ইবরাহিম ত্বহা গভীর হতাশা ব্যক্ত করে বলেন, সুইডিশ সরকার এরূপ অবমাননাকর কাজের ভয়ঙ্কর পরিণতি সত্ত্বেও অনুমতি প্রদান অব্যাহত রেখেছে।

মুসলিম ওয়ার্ল্ড লিগের এক মুখপাত্র ‘মত প্রকাশ ও বাক স্বাধীনতা’র দোহাই দিয়ে সুইডেনের এই ধরনের জঘন্য এবং দায়িত্বজ্ঞানহীন কাজের পুনরাবৃত্তিকে দুঃজনক আখ্যা দিয়েছেন। তিনি সুইডিশ সরকার ও সংশ্লিষ্টদের এই গর্হিত ও অপরাধমূলক কাজ বন্ধে বাস্তব ও দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানান।

বিশ্বখ্যাত ইসলামী বিদ্যাপীঠ মিসরের আলআজহারও সুইডেনের এ ঘটনায় তীব্র সমালোচনা করেছে। প্রতিষ্ঠানটি বলছে, মত প্রকাশের স্বাধীনতার মিথ্যা স্লোগানের অজুহাতে ধারাবাহিকভাবে ইসলামের বিরুদ্ধে সুইডেনের এই উসকানিমূলক কর্মকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানানো হচ্ছে।

উল্লেখ্য, আগেরবারের ঘটনা নিয়ে ব্যাপক প্রতিবাদ হওয়ার পরও বৃহস্পতিবার কড়া পুলিশ পাহারার মধ্যে সুইডেনের সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে পবিত্র কোরআন এবং ইরাকি জাতীয় পতাকার অবমাননা ঘটে।

সুইডেনের রাজধানীতে ইরাকি দূতাবাসের সামনে বর্তমানে সুইডেনে বসবাসকারী ইরাকে জন্মগ্রহণকারী সালওয়ান মমিকা কোরআন এবং ইরাকি পতাকা মাটিতে ফেলে পদদলিত করেন। গত মাসে তিনিই স্টকহোমে কোরআন পুড়িয়েছিলেন।

ঈদুল আজহার দিনে কোরআন পোড়ানো নিয়ে বিশ্বজুড়ে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়েছিল। সুইডেনের সাথে সম্পর্কচ্ছেদের ইরাকের হুঁশিয়ারি সত্ত্বেও বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটে।

-আলজাজিরা মুবাশির অবলম্বনে বেলায়েত হুসাইন

বিডিসংবাদ/এএইচএস