সোনাগাজীর সন্ত্রাসিদের হামলায় একই পরিবারের ৪জন আহত

সোনাগাজী সংবাদদাতাঃ  ফেনীর সোনাগাজীর চরচান্দিয়ায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষ ও ভাড়াটে সন্ত্রাসিদের হামলায় একই পরিবারের ৪ নারী-পুরুষ আহত হয়েছে।

রোববার সন্ধ্যায় চরচান্দিয়া গ্রামের রিয়াজ উদ্দিন মাঝি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হচ্ছে, মৃত আবুল কালামের ছেলে জসিম উদ্দিন, তার স্ত্রীর ফুলওয়ারা বেগম, ছেলে এইচএসসি পরীক্ষার্থী, নূর আলম রাশেদ ও সোনাগাজী হাইস্কু্লের ৯ম শ্রেনির ছাত্র নূর উদ্দিন শাকিব।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার, এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, জসিম উদ্দিনের সাথে একই বাড়ির মৃত আলী আজমের ছেলে সাহাব উদ্দিন গংদের সাথে দীর্ঘ দিন যাবৎ জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। এই নিয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন মিলন উভয় পক্ষের কাগজ পত্র পর্যালোচনা করে উভয় পক্ষের মনোনীত সালিশদারদের মাধ্যমে দীর্ঘ শুনানী শেষে জসিম উদ্দিনের পক্ষে রায় প্রদান করেন। ইউপি চেয়ারম্যানের রায় না মেনে সাহাব উদ্দিন গং জসিম উদ্দিন ও তার পরিবারের সদস্যদের উপর চালাতে থাকে নানা অত্যাচার-নির্যাতন।

জসিম উদ্দিনের মেয়ের বিয়ে উপলক্ষ্যে ঘরের পাশে টয়লেট সংস্কার করা নিয়ে রোববার বিকালে তর্কবিতর্ক হয় পরে সন্ধ্যা ৬টার দিকে সাহাব উদ্দিন, তার ভাই বাহার উল্যাহ, আবু সুফিয়ানের ছেলে মো. সুমন, সাহাব উদ্দিনের স্ত্রী খতিজা খাতুন, কন্যা স্মৃতি ও আবু সুফিয়ানের কন্যা রিনা আক্তার সহ ৪/৫ জন ভাড়াটে সন্ত্রাসি মিলে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে জসিম উদ্দিন ও তার পরিবারের সদস্যদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় তাদেরকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করা হয়। স্থানীয়রা আহতদেরকে উদ্ধার করে সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।

এ ব্যপারো আহত ফুলওয়ারা বেগম বাদি হয়ে ৬ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জনকে আসামি করে সোনাগাজী মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মো. মোয়াজ্জেম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আসামিদের গ্রেফতারে জোর প্রচেষ্ঠা চলছে। ঘটনার পর থেকে আসামিরা আত্মগোপনে চলে গেছে। অভিযোগ প্রাপ্তির পর পরই পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।