হিটলারের ‘মাইন ক্যাম্ফ’ আমি কখনও পড়িনি : ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কখনও জার্মান নাৎসি নেতা অ্যাডলফ হিটলারের বই ‘মাইন ক্যাম্ফ’ পড়েননি।
অভিবাসীদের আক্রমণের জন্য তীব্র সমালোচনার মুখে পড়ে মঙ্গলবার ট্রাম্প এ কথা বলেছেন।
তবে সমালোচনার মুখে পড়েও ট্রাম্প অভিবাসীদের বিরুদ্ধে তার জ্বালাময়ী বক্তৃতা দ্বিগুণ করেছেন।
ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের আইওয়া অঙ্গরাজ্যে এক সমাবেশে বলেছেন, ‘এটা সত্য যে, তারা আমাদের দেশের রক্তকে দূষিত করছে। এটাই তারা করছে। তারা আমাদের দেশকে ধ্বংস করছে।’
ট্রাম্প (৭৭) সপ্তাহান্তেও একই মন্তব্য করেছিলেন। তাঁর এ ধরনের মন্তব্যে সমালোচনার ঝড় ওঠে।
ট্রাম্পের মন্তব্যের প্রেক্ষিতে হোয়াইট হাউসের এক মুখপাত্র সাবেক এই মার্কিন প্রেসিডেন্টকে ফ্যাসিস্ট ও সহিংস শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যবাদীদের বিদ্বেষপূর্ণ বক্তব্যের প্রতিধ্বনি করার জন্য অভিযুক্ত করেন।
এছাড়া ট্রাম্প তার রাজনৈতিক বিরোধীদের ‘কীট’ হিসেবে অভিহিত করায় তাকে হিটলারের কথার প্রতিধ্বনির জন্য গত মাসে অভিযুক্ত করেছিলেন বাইডেন।
ট্রাম্প অবশ্য হিটলারের সঙ্গে তাকে মেলানোর বিষয়টি মঙ্গলবার রাতে প্রত্যাখ্যান করেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি কখনই মাইন ক্যাম্ফ পড়িনি।’
যুক্তরাষ্ট্রে ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পকে পরাজিত করেছিলেন ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী জো বাইডেন। ২০২৪ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে আবারও এই দ’ুজন মুখোমুখি হতে পারেন।
২০২৪ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান দলের মনোনয়ন পাওয়ার দৌড়ে ট্রাম্প স্পষ্টভাবে এগিয়ে আছেন।
এদিকে ট্রাম্পের এসব বক্তব্য রিপাবলিকান দলের নেতাদেরও অত্যন্ত অস্বস্তিকর অবস্থায় ফেলেছে। শীর্ষ রিপাবলিকান সিনেটর মিচ ম্যাককনেল প্রকাশ্যে ট্রাম্পের মন্তব্যের নিন্দা জানিয়েছেন।
ট্রাম্প তাঁর প্রথম প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারকালে ২০১৫ সালে বলেছিলেন, মেক্সিকো থেকে আসা অভিবাসীদের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রে অপরাধী ও ধর্ষক প্রবেশ করছে।
পরে তিনি অভিবাসী ঠেকাতে যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকো সীমান্তে বিশাল প্রাচীর নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দেন।
এই সীমান্তে শত শত কিলোমিটার দীর্ঘ প্রাচীর তৈরিও করা হয়েছে। তবু যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসী আসা বেড়েই চলছে।

বিডিসংবাদ/এএইচএস