তার উপর আস্থা রাখার আহবান টেন হাগের

ইউনাইটেডের ঐতিহ্য ধরে রাখতে তার উপর আস্থা রাখার আহবান জানিয়েছেন কোচ এরিক টেন হাগ। একইসাথে সমস্যায় থাকা ক্লাবটিকে নতুন করে টেনে তোলার লক্ষ্যে তিনিই সঠিক ব্যক্তি বলে দাবী জানিয়েছেন ইউনাইটেড বস।
এবারের মৌসুমের শুরুটা মোটেই ভাল হয়নি ইউনাইটেডের। যে কারনে নতুন মৌসুমের শুরু থেকে চাপে ছিলেন টেন হাগ। অথচ গত মৌসুমে ছয় বছরের মধ্যে প্রথম শিরোপা উপহার দেবার পর ডাচ এই কোচের প্রতি ক্লাবের অগাধ বিশ্বাস ছিল। শনিবার নিউক্যাসলের কাছে ১-০ গোলের হারের মাধ্যমে ইউনাইটেডর এবারের মৌসুমে সব ধরনের প্রতিযোগিতায় ২১ ম্যাচে ১০ম পরাজয়ের স্বাদ পেয়েছে। এর ফলে শীর্ষ চার থেকে পাঁচ পয়েন্ট পিছিয়ে বর্তমানে লিগ টেবিলের সপ্তম স্থানে রয়েছে ইউনাইটেড।
আগামী সপ্তাহে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ বায়ার্ন মিউনিখ। এই ম্যাচের ফলাফলের উপর তাদের বিদায় নেয়া, না নেয়া নির্ভর করবে।
টেন হাগকে নিয়ে পুরো দলের মধ্যে মূল সমস্যা হলো নিবিড় অনুশীলন ও শৃঙ্খলার ব্যপারে কঠোরতা অনেক সময় খেলোয়াড়দের কাছে সহনীয় মনে হয়না। এতে অনেক খেলোয়াড়েরই মোহ ভঙ্গ হয়েছে। এটা অবশ্য বিভিন্ন গণমাধ্যমের রিপোর্টে বলঅ হয়েছে। ইউনাইটেডে যদিও এই রিপোর্টের ব্যপারে কোন ধরনের পাল্টা জবাব দেয়নি। মঙ্গলবার গণমাধ্যমের সামনে টেন হাগ অনেকটা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। এসময় তিনি বলতে বাধ্য হয়েছে গত বছর গ্লেজার পরিবার তাকে কোচ হিসেবে নিয়োগ দিয়ে সঠিক কাজই করেছেন। টেন হাগ বলেন, ‘প্রতিটি যাত্রায় সবসময়ই কঠিন একটা সময় থাকে। কিন্তু এই মুহূর্তে আমরা সঠিক পথে আছি। আমি জানি যেখানে আমরা যেতে চাই সেখানে অবশ্যই পৌঁছাবো। কারন তোমরা সবাই আমার অতীত রেকর্ড জানো। প্রতি মৌসুমে আমি যেখানেই গেছি লক্ষ্যপূরণ করতে পেরেছি। সে কারনে আমরা যদি নিজেদের পরিকল্পনায় অটুট থাকি, কৌশল মাঠে কাজে লাগাতে পারি তবে অবশ্যই সঠিক পথে এগিয়ে যাবো।’
ওল্ড ট্রাফোর্ডে আসার আগে ডাচ পেশাদার ক্লাব গো এ্যাহেড ঈগলস ও উট্রেখের পর আয়াক্সের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ৫৩ বছর বয়সী টেন হাগ ডাচ জায়ান্ট আয়াক্সের হয়ে তিনটি লিগ শিরোপা জয় করেছেন। ২০১৯ সালে তার অধীনে আয়াক্স চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালেও খেলেছে।
এই মুহূর্তে ইউনাইটেডকে সঠিক পথে ফেরাতে হলে বাস্তবতা কি এমন প্রশ্নের উত্তরে টেন হাগ বলেছেন, ‘প্রথমত আমি বলতে চাই এই ক্লাবে আমাদের একথা বলার উপায় নেই যে আমরা দুই, তিন বছর অপেক্ষা করবো। এই ক্লাবের মূল লক্ষ্যই হচ্ছে প্রতিটি ম্যাচে জয়ী হওয়া। আমিও আমার খেলোয়াড়দের কাছ থেকে প্রতি ম্যাচেই জয়ের দাবী জানিয়েছি। প্রতিপক্ষ কোন দল সেটা দেখার প্রয়োজন নেই। আমি এখনো এই লক্ষ্যে অবিচল। খেলোয়াড়দের মধ্যে মানসিকতার পরিবর্তন করতে চাইনা।’

বিডিসংবাদ/এএইচএস