ব্রাজিল প্রবাসীদের কর্মসংস্থানে খাইরুলের মেগা শপ

মীর আহম্মদ মীরু, ল্যাটিন আমেরিকাঃ

ল্যাটিন আমেরিকা ব্রাজিলে বাংলাদেশের অসংখ্য মানুষ জীবন মানের উন্নয়নের জন্য বসবাস করে। জীবিকার তাগিতে সেখানে বাংলাদেশিরা দীর্ঘদিনযাবৎ নানা কর্মকান্ডে জড়িত।

করোনার প্রকোপে ব্রাজিলের অর্থনৈতিক অবস্থা মারাত্বকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সব থেকে বড় সমস্যার সম্মুখীন হয়েছিল বাংলাদেশিরা। তবুও জীবনযুদ্ধ থেমে থাকে না। সংকটাপন্ন সময়েও ঘরে বাইরে রুটি-রুজির মধ্যে বের হতে হচ্ছে প্রবাসীদের।

এরি মধ্যে প্রবাসীদের এই সংকটাপন্ন সময়ে পাশে দাঁড়িয়েছে ব্রাজিলের প্রতিষ্ঠিত বিশিষ্ট প্রবাসী ব্যবসায়ী ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কৃতি সন্তান মো:খাইরুল হাসান।

ব্রাজিলের বিভিন্ন প্রদেশে তাঁর সুপ্রতিষ্ঠিত কয়েকটি বড় কাপড়ের দোকান রয়েছে। সম্প্রতি মো:খাইরুল তাঁর ব্রাজিলের আরাকাতুবায় একটি নতুন মেগা শপ বা দোকান রয়েছে যা ফ্যাশন এবং আনুষাঙ্গিক জিনিস যেমন কাপড়,জুতা, চশমা, ঘড়ি, ব্যাগ ইত্যাদি সমাহার নিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করছেন যেখানে অসংখ্য প্রবাসীরা কর্মরত।

মো: খাইরুল হাসান

মো: খাইরুল হাসান বলেন, ” ব্রাজিলে দীর্ঘদিন যাবৎ ব্যবসায়ের সাথে জড়িত আছি। এখানকার ব্যবসায়ের পরিবেশ নিয়ে যথেষ্ট ধারনা ছিল বিধায় নিজের এবং প্রবাসীদের কর্মসংস্থানের কথা করে চিন্তা করে প্রতিষ্ঠান দেই। ব্রাজিলের আরাকাতুবা এই মেগা শপটি আমার সাত নম্বর প্রতিষ্ঠান যেখানে বর্তমানে ২০জন বাংলাদেশি কর্মরত। আগামী ২০২১ সাল নাগাদ ১০০ জন প্রবাসীর কর্মসংস্থান করার ইচ্ছা আছে।”

জানা যায় যৌথ উদ্যোগে খাইরুলের নেতৃত্বে মেগা লজাও গ্রুপ গত তিন বছরে ব্রাজিলের তিনটি প্রদেশে ছয়টি দোকান প্রতিষ্ঠা করেছিল এবং আরো তিনটি দোকান চালু হবার কাজ চলছে।

ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে নভেম্বর-ডিসেম্বরকে বলা হয় ব্যবসা মৌসুমের মাস। বছরের অন্যান্য সময়ের তুলনায় এই দু’মাস অনেক ব্যবসা হয়। তার কারণ হল ব্রাজিলের খ্রিস্টান্দের অন্যতম উৎসব নাতাল বা বড়দিনকে কেন্দ্র করে।

ব্রাজিলে বাংলাদেশের অনেক মানুষ জীবন মানের উন্নয়নের জন্য বসবাস করে। জীবিকার তাগিতে সেখানে বাংলাদেশিরা নানা কর্মকান্ডে জড়িত। তবে ব্রাজিলে বর্তমান প্রবাসীদের অভিমত রুটিরজির জন্য সেখানে চাকুরীর থেকে ব্যবসা অনেক বেশি লাভজনক এবং সহজ। সেখানে বিভিন্ন পুঁজিতে ব্যবসা শুরু করে অনেকেই সফল।

বিডিসংবাদ/এএইচএস