খ্যাতিমান অভিনেত্রী রোজীর নবম প্রয়ান দিবস আজ

আজ ৯ মার্চ। ঢালিউডের বরেণ্য অভিনয়শিল্পী রোজী আফসারীর নবম মৃত্যুবার্ষিকী। ২০০৭ সালের এই দিনে না ফেরার দেশে চলে যান উপমহাদেশের খ্যাতিমান এই অভিনেত্রী। গুণমুগ্ধকর অভিনয় আর সরল হাসির জন্য বাংলা চলচ্চিত্রে তিনি ছিলেন অদ্বিতীয়া। লক্ষীপুরের মেয়ে রোজী আফসারীর প্রকৃত নাম শামীমা আক্তার রোজী। প্রয়াত এ গুণী অভিনেত্রীর প্রয়াণ দিবসে বিডিসংবাদের পক্ষ থেকে গভীর জানাই শ্রদ্ধাঞ্জলি।

বাংলা চলচ্চিত্রের সোনালি যুগের জনপ্রিয় অগ্রজ অভিনেত্রী ছিলেন রোজী। ১৯৬৪ সালে এই তো জীবন সিনেমার মাধ্যমে ক্যারিয়ার শুরু করেন এ অভিনেত্রী। তবে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন নারায়ণ ঘোষ মিতা পরিচালিত আলোর মিছিল চলচ্চিত্রে অভিনয় করে।

জীবদ্দশায় তার ৪ দশকের ক্যারিয়ার জীবনে প্রায় ৩৫০টির মতো সিনেমায় অভিনয় করেছেন এ অভিনেত্রী। এর মধ্যে পাকিস্তানের জাগে হুয়া সাবেরা, পুনম কি রাত সহ প্রায় ২৫টি উর্দু ছবিতে অভিনয় করেছেন এ অভিনেত্রী। পেয়েছেন পাকিস্তানের সম্মানজনক নিগার পুরস্কার। এছাড়া দেশীয় চলচ্চিত্রের জন্য জাতীয় (লাঠিয়াল), বাচসাস ও জহির রায়হান পুরস্কার অর্জন করেন।

রোজী অভিনীত তার শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে রয়েছে- সূর্য গ্রহণ, সূর্য সংগ্রাম, জীবন থেকে নেয়া, তিতাস একটি নদীর নাম প্রভৃতি।

এ ছাড়াও তার অন্যান্য জনপ্রিয় চলচ্চিত্রের মধ্যে রয়েছে, ওরা ১১ জন, লাঠিয়াল, এতটুকু আশা, নীল আকাশের নিচে, অশিক্ষিত, প্রতিকার ইত্যাদি। তার সর্বশেষ অভিনীত সিনেমার নাম পরম প্রিয়। ২০০৫ সালে মুক্তি পায় এ চলচ্চিত্রটি।

জীবন চলার পথে ব্যক্তিত্বসম্পন্ন রোজী আফসারী খ্যাতিমান অভিনেতা আনোয়ার হোসেন, খলিলউল্লাহ খান, শওকত আকবরদের মতো তারকা অভিনেতাদের সঙ্গে দাপটের সঙ্গে অভিনয় করেছেন।

কবিতা সামাদ ও মুহাম্মদ জুবায়ের ওরফে রবি নামে দুই সন্তান রয়েছে এই অভিনেত্রীর।