তুমি

কবি হাসিনা মরিয়ম

কে তুমি?

আমি কি তোমাকে চিনি? হ্যা-

তুমি হলে গোলাপের কাঁটা

ব্যথা ছড়িয়ে দাও আমার শরীরে,

তুমি হলে আকাশের আধফালি চাঁদ-

বিষন্নতা ছড়িয়ে দাও আমার মনে,

তুমি হলে বৈশাখের ঝড়ো হাওয়া-

উড়িয়ে নিয়ে যাও আমার জমানো স্মৃতিগুলো,

তুমি হলে চৈত্রের খাঁ খাঁ রোদ-

ভেঙ্গে চৌচির করে দাও আমার হৃদয় উঠোন,

তুমি হলে বসন্তের কোকিল-

ফুল ঝরে গেলে হারিয়ে যাও,

তুমি হলে বর্ষার বর্ষন-

শিক্ত করো আমার দুচোখ,

তুমি হলে ভাদ্রের উত্তাপ-

পুড়িয়ে ছাড়খার করো আমায়,

তুমি হলে অমানিশার অন্ধকার-

আলো থেকে বঞ্চিত করো আমায়,

তুমি হলে নিশি রাতের চাতকের আর্তনাদ-

আমার বুকের ভিতর কষ্টের ডানা ঝাঁপটায়,

তুমি হলে অন্ধকারের গান-

যে সুর আমাকে জাগিয়ে রাখে প্রতিনিয়ত,

তুমি হলে

দীর্ঘরাত্রির দুঃস্বপ্ন-

যা আমাকে তাড়িত করে,

তারপরও...

তোমাকে আমি চিনি,

ভীষনভাবে চিনি-

আমার অস্তিত্বে অনুভব করি তোমায়-

তোমাকে না পেলে-

অস্থির ভাবে পায়চারী করি

তোমার স্পর্শে বিমোহিত হয় আমার মন, শরীর...

সব কষ্টের মাঝেও

আমি তোমাকে চিনি-

ভীষনভাবে চিনি...।।

বিডিসংবাদ/এএইচএস